আধুনিক প্রযুক্তি নিয়ে গবেষণার জন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সেন্টার অব এক্সিলেন্স প্রতিষ্ঠা করা হবে

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা এবং সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে সরকার দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে “সেন্টার অব অক্সিলেন্স অন ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজিস” প্রতিষ্ঠা করবে। তিনি বলেন আর্টিফিসিয়াল ইন্টিলিজেন্স (এআই), আইওটি, ব্লকচেইন, রোবটিকস্‌ সহ অত্যাধুনিক তথ্যপ্রযুক্তির বিষয়ে গবেষণা ও জ্ঞান আহরণের মাধ্যমে চতুর্থ শিল্প বিল্পবের অমিত সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে শিক্ষার্থীদেরকে এখন থেকেই প্রস্তুত করতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী আজ (১৩ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ মিলনায়তনে “২য় ডিআরএমসি-আইসোটেক গ্রুপ ইন্টারন্যাশনাল টেক কার্নিভাল-২০২০” এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন প্রযুক্তিজ্ঞান সমৃদ্ধ জাতি গঠনে ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৮ হাজার শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব প্রতিষ্ঠা করা হয়োছ। আগামী ৫ বছরে আরো ১০ হাজার ল্যাব প্রতিষ্ঠা করা হবে। এছাড়াও বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে স্পেশালাইজড ল্যাব প্রতিষ্ঠা করা হচ্ছে।

পলক বলেন দেশে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেম গড়ে তুলতে সরকার “ইনোভেশন ডিজাইন এন্ড এন্ট্রারপ্রেইনিয়রশীপ একাডেমী (আইডিয়া)” প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। উক্ত প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের উদ্যোক্তাদের জন্য প্রাথমিক অর্থাৎ সীড স্টেজে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত এবং গ্রোথ স্টেজে ১ থেকে ৫ কোটি টাকা পর্যন্ত ভেঞ্চার ক্যাপিটাল হিসেবে প্রদান করা হচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন দেশের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের মাধ্যমে আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর জাতি হিসেবে বিশ্ব দরবারে নিজেদেরকে পরিচিত করতে হবে। তিনি প্রযুক্তি ও জ্ঞানের সমন্বয় ঘটিয়ে প্রতিটি সমস্যাকে প্রযুক্তির মাধ্যমে সম্ভাবনায় রূপান্তরের জন্য শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানান। ঢাকা রিসিডেনসিয়াল মডেল কলেজে একটি সেন্টার অব এক্সিলেন্স অন ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি ল্যাব স্থাপনেরও ঘোষণা দেন তিনি।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন কলেজের অধ্যক্ষ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী শামীম ফরহাদ। পরে ৩ দিন ব্যাপী আয়োজিত কার্নিভালের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

৩ দিন ব্যাপী এই কার্নিভালে লাইভ ওয়েবসাইট ক্রিয়েটিং, আইটি অলিম্পিয়াড, সোলো কুইজ, টিম কুইজ, মাল্টিমিডিয়া প্রেজেন্টেশন, আইডিয়া পিচিং, গ্যাজেট গিক, কোড রেইস, পিসি গেইমিং, ফান ফ্যাক্টরী, ভিআর গেইম, ওয়েব ডিজাইন, মোবাইল গেইমিং, প্রজেক্ট ডিসপ্লে, টেক এক্সটেম্পোর স্পীচ, রোবো সোসার, টেক ড্যাড, রোবো এক্সপো, দেয়াল পত্রিকা, ফটোগ্রাফিক ওয়ার্কশপ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। কার্নিভাল আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন