ঢাকা ০৪:১২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

ঈশ্বরদীতে বিষপানে গৃহবধুর আত্মহত্যা 

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি:
  • প্রকাশিত সময় ০৯:২১:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৩
  • / 30

প্রতীকী ছবি


পাবনার ঈশ্বরদীতে বিষপানে এক গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে। গতকাল ২৩ জানুয়ারী সকাল ১১ ঘটিকায় নিজ বাড়িতেই বিষপান করেন তিনি।

বিষপানে আত্মহত্যাকারী মুর্শিদা খাতুন (৪০) উপজেলার দাশুড়িয়া ইউনিয়নের বাড়াহুসিয়া গ্রামের মো. শহিদুল ইসলামের স্ত্রী এবং তিন সন্তানের জননী।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, নিহত মুর্শিদার স্বামী  মো. শহীদুল ইসলাম পেশায় রিক্সাচালক ছিলেন। পেশাগত কারণ আর পরিবারের অভাব দুর করতে এবং অধিক আয়ের খোঁজে রিক্সা চালাতে ঢাকায় পাড়ি জমান। সেখানেই শহীদুল আরেকটি বিবাহ করেছে এমন খবর এলাকায় চাউর হলে পরিবারের চাপের মুখে পড়েন শহীদুল। যদিও জিজ্ঞাসা বাদে দ্বিতীয় বিবাহের কথা অস্বীকার করেছেন শহীদুল। সেই বিবাহকে কেন্দ্র করেই পারিবারিক অশান্তি নিত্যদিনের সঙ্গী হয়ে যায় মুর্শিদার। তারই রেশে গতকাল সকাল ১১ ঘটিকায় বিষ পান করেন মুর্শিদা। সকালে বিষ পান করলেও সন্ধ্যায় তাকে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান পরিবারের সদস্যরা। সেখানে মুর্শিদার অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। সেখানেই চিকিৎসারত অবস্থায় মঙ্গলবার সকাল ১০ ঘটিকায় তার মৃত্যু হয়েছে।

এই রকম আরও টপিক

ঈশ্বরদীতে বিষপানে গৃহবধুর আত্মহত্যা 

প্রকাশিত সময় ০৯:২১:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২৩

পাবনার ঈশ্বরদীতে বিষপানে এক গৃহবধু আত্মহত্যা করেছে। গতকাল ২৩ জানুয়ারী সকাল ১১ ঘটিকায় নিজ বাড়িতেই বিষপান করেন তিনি।

বিষপানে আত্মহত্যাকারী মুর্শিদা খাতুন (৪০) উপজেলার দাশুড়িয়া ইউনিয়নের বাড়াহুসিয়া গ্রামের মো. শহিদুল ইসলামের স্ত্রী এবং তিন সন্তানের জননী।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, নিহত মুর্শিদার স্বামী  মো. শহীদুল ইসলাম পেশায় রিক্সাচালক ছিলেন। পেশাগত কারণ আর পরিবারের অভাব দুর করতে এবং অধিক আয়ের খোঁজে রিক্সা চালাতে ঢাকায় পাড়ি জমান। সেখানেই শহীদুল আরেকটি বিবাহ করেছে এমন খবর এলাকায় চাউর হলে পরিবারের চাপের মুখে পড়েন শহীদুল। যদিও জিজ্ঞাসা বাদে দ্বিতীয় বিবাহের কথা অস্বীকার করেছেন শহীদুল। সেই বিবাহকে কেন্দ্র করেই পারিবারিক অশান্তি নিত্যদিনের সঙ্গী হয়ে যায় মুর্শিদার। তারই রেশে গতকাল সকাল ১১ ঘটিকায় বিষ পান করেন মুর্শিদা। সকালে বিষ পান করলেও সন্ধ্যায় তাকে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান পরিবারের সদস্যরা। সেখানে মুর্শিদার অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কর্তব্যরত চিকিৎসক রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। সেখানেই চিকিৎসারত অবস্থায় মঙ্গলবার সকাল ১০ ঘটিকায় তার মৃত্যু হয়েছে।