করোনা ভাইরাসঃ বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোষ্টে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি

বেনাপোল প্রতিনিধিঃ চীনে “করোনা ভাইরাস” মহামারী আকার ধারন করায় বেনাপোল আন্তর্জাতিক চেকপোস্টে রবিবার সকাল থেকে সর্বোচ্চ সতর্কবস্থা জারী করেছে স্বাস্থ্য বিভাগ।

ভারত হয়ে যে সকল বিদেশী পর্যটক বাংলাদেশ প্রবেশ করছে তাদের চেকপোস্ট স্বাস্থ্য বিভাগ অত্যন্ত সতর্কতার সাথে স্বাস্থ্য পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখছেন। কয়েক সপ্তাহ ধরে শুধু মাত্র দেশী-বিদেশী যাত্রীদের পরীক্ষা করা হলেও বৃহস্পতিবার বিকেলে থেকে শুরু হয়েছে ভারত বা মহারাষ্ট্র থেকে আসা সকল ট্রাক ড্রইভার ও হেলপারদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা।

তবে বেনাপোল চেকপোস্টে থার্মাল স্কানার মেশিনটি সচল থাকলেও তার মনিটরটি অচল থাকায় থার্মো ডিকেক্টর দিয়ে পরীক্ষা কার্যক্রম সম্পন্ন করা হচ্ছে। যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য এখানে ৪ টি মেডিকেল টিম কাজ করছে। কোন যাত্রীর ঠান্ডা কাশি বা গায়ে তাপমাত্রা বেশী আছে কিনা সেটা পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হচ্ছে। তবে এখনো পর্যন্ত কোন যাত্রীর শরীরে করোনা ভাইরাসের কোন লক্ষণ পাওয়া যায়নি।

বেনাপোল একটি আন্তজার্তিক চেকপোষ্ট। এ চেকপোষ্ট দিয়ে প্রতিদিন ৭ থেকে ৮ হাজার দেশী-বিদেশী পাসপোর্ট যাত্রী যাতায়াত করে ভারতে। করোনা ভাইরাসের জীবানু যাতে বাংলাদেশে প্রবেশ করতে না পারে তার জন্য গত ১৮ জানুয়ারী থেকে বিভিন্ন দেশ থেকে আসা সন্দেহজনক পাসপোর্ট যাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে বলে জানান মেডিকেল অফিসার ডাক্তার বিচিত্র মল্লিক।

বেনাপোল চেকপোষ্ট দিয়ে ভারত থেকে আসা মোট ৩০ হাজার ১৯৬ জন যাত্রীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ভারতীয় রয়েছে ৬ হাজার ৪৮ জন এবং অন্যান্য দেশের রয়েছে ২০৬ জন ওবাকি রা বাংলাদেশী যাত্রী। কোন যাত্রীর শরীরে করোনা ভাইরাসের লক্ষণ পাওয়া গেলে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হবে বলে তিনি জানান।

বেনাপোল চেকপোষ্টে কর্তব্যরত মেডিকেল অফিসার বিচিত্র মল্লিক বলেন, চীনে করোনা ভাইরাস দেখা দেওয়ায় স্বাস্থ্য মন্ত্রনালয় দেশের সকল ইমিগ্রেশন চেকপোষ্টে চিঠি জারী করেছে সর্বচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করার জন্য। বেনাপোল চেকপোষ্টেও সেই সতর্কতা পালন করা হচ্ছে। পাসপোর্টধারী যাত্রীদের পাশপাশি ভারত থেকে আসা সকল যাত্রী ও ট্রাক ড্রাইভার ও হেলপারদেরও স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন