কর্মকর্তাদের প্রতি বৈষম্যের প্রতিকার চেয়ে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন

গতকাল রোববার কর্মকর্তাদের প্রতি বৈষম্যের প্রতিকার চেয়ে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে আয়োজিত মানববন্ধন।


পাবনা সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১১:৫৬ অপরাহ্ন, ১৯ জুন ২০২২

দেশীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নীতি নির্ধারক বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন (ইউজিসি)। বিশ্ববিদ্যালয় কর্মকর্তাদের চাকুরীজনিত সুবিধা অসুবিধা বিবেচনায় এনে সম্প্রতি ইউজিসি একটি নীতিমালা প্রণয়ণের উদ্যোগ নিয়েছে। যেটি প্রায় চূড়ান্তভাবে অনুমোদনের পথে।

কিন্তু সেই নীতিমালাকে অভিন্ন ও বৈষম্যমূলক বলে অভিযোগ জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্মকর্তাদের সংগঠন বাংলাদেশ আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ফেডারেশন (বাআবিঅফ)। সে অভিযোগের পাশাপাশি সংগঠনটি দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে মানববন্ধন কর্মসূচীর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তারই ধারাবাহিকতায় পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অত্র প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাগণ একটি মানবন্ধন কর্মসূচীর আয়োজন করেন। রোববার (১৯ জুন) সকালে বঙ্গবন্ধু ম্যুরালের সামনে এ মানববন্ধন করেন তারা। মানববন্ধন পরিচালনা করেন সহকারী রেজিস্টার জহুরুল ইসলাম প্রিন্স।

মানববন্ধনে বক্তারা তাদের পদোন্নতি, বেতন বৈষম্য ও চাকুরী মেয়াদকাল জনিত জটিলতার সমাধান বিষয়ক মোট ১২ টি দাবী তুলে ধরে বলেন, একটি বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনার প্রশ্নে আমরা (কর্মকর্তাবৃন্দ) বড় একটি চালিকাশক্তি। বিশ্ববিদ্যালয় উন্নয়ন প্রসঙ্গে আমাদের অবদানও উল্লেখযোগ্য।

অথচ ইউজিসি যে অভিন্ন নীতিমালা করতে চলেছেন সেখানে আমাদের প্রতি চরম বৈষম্যমূলক আচরণ প্রদর্শন করা হয়েছে। এটা সবাই জেনে থাকে সরকারি চাকুরীতে সর্বোচ্চ চার বার পদোন্নতির নিয়ম রয়েছে। সেখানে বিভিন্ন কর্মকর্তা হিসেবে যোগদানের পর কেবল আমাদেরই কোনো পদোন্নতির ব্যবস্থা নেই। যেটি খুবই দুঃখজনক। তাই ইউজিসি সহ শিক্ষা মমন্ত্রণালয় ও প্রধানমন্ত্রীর নিকট আমরা মোট ১২ টি দাবী সম্বলিত স্মারকলিপি প্রদান করেছি। দাবী আদায়ে আমরা সর্বদা সরব থাকবো।

এ মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ফেডারেশন, যুগ্ম মহাসচিব রফিকুল ইসলাম, অত্র বিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ফাহমিদা খানম, অতিরিক্ত পরিচালক (পরিকল্পনা) গুলজার হোসেন, অতিরিক্ত পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) শাহানশাহ, অতিরিক্ত রেজিস্টার কামরুল হাসান, অতিরিক্ত পরিচালক হাফিজুর রহমান, উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) ফারুক হোসেন চৌধুরী, উপ-পরিচালক সামছেদ ফখরুল, সহকারি রেজিস্টার হারুণ অর রশিদ ডন, সহকারি রেজিস্টার সোহাগ হোসেন, হিসাব রক্ষক কর্মকর্তা আতিকুর রহমান, সেকশন অফিসার নাসরিন পারভীন, সেকশন অফিসার ওলিউল্লাহ, সহকারী হিসাব রক্ষক কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন, সেকশন অফিসার শেখ মাহমুদ কানন, টেকনিশিয়ান রুবেক হোসেনসহ আরো অনেকে।

 


 আরও পড়ুনঃ

 আরও পড়ুনঃ

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন