কাউন্সিলর নয় জনগনের সেবক হতে চাই -জাফরুল হায়দার চৌধুরী

রায়হান হোসাইন, চট্টগ্রামঃ আসন্ন ২৯শে মার্চ এ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী হতে আওয়ামীলীগের মোট ১৯ জন প্রার্থী ও ৪১টি ওয়ার্ডে মোট ৪০৯জন কাউন্সিলর পদপ্রার্থী মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করে জমা প্রদান করেছিলেন।

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনী মুখোর পরিবেশে ব্যস্ত বিভিন্ন দলের নেতা-কর্মীরা।

বিগত কয়েক মাস পূর্বে কানাঘুষা হতো যে হয়তোবা বর্তমান মেয়র চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আ.জ.ম নাছির উদ্দিন মনোনয়ন পাবে। কিন্তু না এমনটি হয়নি পরিবর্তন হয়েছিল ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ন্যায়।

পরিবর্তন এসেছে ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের মধ্যেও ৪১টি ওয়ার্ডের মধ্যে ১২টি ওয়ার্ডে পরিবর্তন দেখা যায়।

নগর ছাত্রলীগের বেশ কয়েকজন নেতা ও কর্মীসহ মাঠ পর্যায়ে রীতিমতো গনসংযোগ করতে দেখা যাচ্ছে এই প্রভাবশালী যুবলীগ নেতা এস.এম পারভেজকে।

এস.এম পারভেজ আমাদের বলেন, দলীয় প্রার্থী জাফরুল হায়দার চৌধুরী সবুজ ভাইকে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে জয়ী দেখতে চাই এরই লক্ষ্যে সব ধরনের কর্মসূচীমূলক কর্মকান্ড নিয়ে তৈরী আছি। ২৭নং ওয়ার্ডে আওয়ামী মনোনীত কাউন্সিলর পদ প্রার্থী ২৭নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাফরুল হায়দার চৌধুরীর পক্ষেও কাজ করে যাবো।

যুবলীগ নেতা এস.এম পারভেজ আরো বলেন, জাফরুল হায়দার চৌধুরী ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতির সাথে জড়িত ছিলেন শুধু তাই নয় ৯০ এর স্বৈরাচারী এরশাদ বিরোধী আন্দোলন, ৯৬ এর অসহযোগ আন্দোলনসহ বিভিন্ন আন্দোলনের জীবন বাজি রেখে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে সুউচ্চ করার লক্ষ্যে রাজপথের সৈনিক ছিলেন জাফরুল হায়দার চৌধুরী সবুজ। চট্টগ্রাম সিটি কলেজ সংসদের সাবেক সভাপতিও ছিলেন জাফরুল হায়দার চৌধুরী সবুজ।

গনসংযোগে আরো উপস্থিত ছিলেন, মোছলেম উদ্দিন শীবলী, মোঃ সুমন, মোঃ মনির, চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের উপ-অর্থ সম্পাদক আবু হানিফ রিয়াদ, উপ-ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক কাজী মাহামুদুল হাসান রনি, জাকির হোসেন মিন্টুসহ আরো অনেক নেতাকমীরা।

ওয়ার্ড কাউন্সিলদের মধ্যে ১২ জন মনোনীত হয়নি তাই বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবেই দাড়িয়েছেন। বর্তমান অবস্থা স্বাভাবিক হলেও নির্বাচনের দিন হয়েতোবা বিরোধের সম্ভাবনা আছে বলে মনে করেন মহানগর রাজনীতিবীদরা।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন