কোরআন ও আধুনিক শিক্ষার সমন্বয় গাইবান্ধার বুকে গড়ে উঠেছে ব্যতিক্রমী প্রতিষ্ঠান!

গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের চরাঞ্চলে কোরআন ও আধুনিক শিক্ষার সমন্বয় ব্যতিক্রমী প্রতিষ্ঠান কেরানীর চর দারুল উলুম নুরানী হাফেজিয়া ও এতিমখানা মাদ্রাসা।

মেধা ও নৈতিকতার সমন্বয়ে আলোকিত মানুষ গড়া জন্য গড়ে উঠেছে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের ব্যতিক্রমী প্রতিষ্ঠান কেরানীর চরের দারুল উলুম নুরানী হাফেজিয়া ও এতিমখানা মাদ্রাসা।

২০১৪ সালে স্থাপিত হওয়া মাদ্রাসায় এখন চরাঞ্চলের গরিব, দুঃখী ও এতিম পরিবারের কেমলমতি শিক্ষার্থীরা কোরআন ও আধুনিক শিক্ষা গ্রহন করছেন।

মেধা ও নৈতিকতার সমন্বয়ে গড়ে উঠা এই মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা এখন থেকে শিক্ষালাভ করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরী করতেছেন।

আবার নুরানী ও হেফজ শেষ করে অনেকেই উচ্চ শিক্ষা নিতে বাহিরে চলে গেছেন। প্রতিবছর হেফজ শেষ করা শিক্ষার্থীদেরকে কেরআন মাহফিলে সম্মানের সাথে পাগড়ী প্রদান করা হয়।

গেল বছর এই প্রতিষ্ঠানের ৫ জন মেধাবী শিক্ষার্থীকে পাগড়ী প্রদান করা হয়।

১৩০ জন, এর মধ্যে ১০ জন এতিম শিশু শিক্ষার্থীদের জন্য ৪ জন শিক্ষক এই প্রতিষ্ঠানে নিয়মিত পাঠ দান করছেন।

কেরানীর চরের বিশিষ্ট সমাজ সেবক হেলাল মিয়ার দানকৃত প্রায় ৫০ শতাংশ জমিতে গড়ে তোলা এই প্রতিষ্ঠানটি যেন দ্বীনদার ও পরহেজগার আল্লাওয়ালা মানুষ তৈরির অন্যতম মাধ্যম।

তবে এই এলাকার মানুষের দানে এই বৃহৎ প্রতিষ্ঠান চালানো প্রায় কষ্টকর।

বিভিন্ন দাতা সদস্য ও দানশীল ব্যক্তি সহযোগিতার হাত বাড়ালে এই প্রতিষ্ঠান থেকে বের হবে হযরত আবু বকর হযরত ওমর, হযরত আলী, হযরত ওসমান (রঃ) এর মতো মানুষ।

আরও পড়ুনঃ কাঠের সেতু তৈরি হওয়ায় স্বস্তিতে গাইবান্ধার চন্ডিপুরের বাসিন্দারা!

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন