ঢাকা ০৮:২৭ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

চট্টগ্রাম নগরীর বন্দরকেন্দ্রীক সড়কে মধ্যরাতের দীর্ঘ যানজটে বেহাল দশা

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত সময় ০৯:২১:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ মার্চ ২০২০
  • / 18

রায়হান হোসাইন, চট্টগ্রামঃ নগরীর বেশ কয়েকটি স্থানে দিন থেকে রাত পর্যন্ত দীর্ঘ যানজটের দৃশ্য রীতিমতো দেখা যায়। ওভার ব্রিজগুলোর ফলে যানজটের সমস্যা কিছুটা সমাধান হলেও বেশ কয়েকটি কারনে এ যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।

যেমন-বন্দরকেন্দ্রীক সড়কগুলোতে মালামাল লোড-আনলোডের জন্য টলি, ব্যাকফুড ট্রাক, কাভার্ডনভ্যান ইত্যাদি পরিবহন নির্দিষ্ট টুল রোডে যাতায়াত না করা, কাভার্ডভ্যানগুলোর ট্রাফিক সিগনাল অমান্য করা, পরিবহন খাতের সংগঠনের চাঁদা আদায়, ফুট ওভারব্রীজগুলোতে পারাপার না হওয়া ইত্যাদি সংগত কারনসহ আরো বেশ কয়েকটি কারনে এই যানজটের সৃষ্টি।

এই যানজট নিরসনের জন্য ট্রাফিক বিভাগ যথাসাধ্য নিরসনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে আমাদের জানান, উপ-পুলিশ কমিশনার কার্যালয়ের টিআই (প্রশাসন) মশিউর রহমান।

দিনের অবস্থা যেমনি হোক কিন্তু মাধ্যরাতের দৃশ্য যেন তার একেবারেই ব্যতিক্রমধর্মী। বন্দরে মালামাল লোড-আনলোডের জন্য ট্রাক, টলি, লং ভিকল এ পরিবহনগুলোর যানজট যেন দিনের যানজটকেও হার মানায়।

গতকাল রাত ২.৩০ মিনিটে সরজমিনে দেখা মেলে প্রায় ৬ মাইল জুড়ে এই দীর্ঘ যানজটের। এর ফলে ভোগান্তিতে পড়তে হয় জরুরী রোগী বহনকারী এ্যাম্বুলেন্সসহ সব ধরনের পরিবহনগুলোকেও।

বন্দরকেন্দ্রীক এসব পরিবহনগুলোর প্রবেশের জন্য শুধুমাত্র ১ নম্বর জেটি গেইটিই ব্যবহার করতে হয় ফলে এই বেহাল দশা যানজট মধ্যরাতের।

তবে কর্তব্যরত ডিউটি সার্জেন্ট এর নিকট এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি নানান অজুহাতে এড়িয়ে যান।

চট্টগ্রাম নগরীর বন্দরকেন্দ্রীক সড়কে মধ্যরাতের দীর্ঘ যানজটে বেহাল দশা

প্রকাশিত সময় ০৯:২১:৪০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ মার্চ ২০২০

রায়হান হোসাইন, চট্টগ্রামঃ নগরীর বেশ কয়েকটি স্থানে দিন থেকে রাত পর্যন্ত দীর্ঘ যানজটের দৃশ্য রীতিমতো দেখা যায়। ওভার ব্রিজগুলোর ফলে যানজটের সমস্যা কিছুটা সমাধান হলেও বেশ কয়েকটি কারনে এ যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।

যেমন-বন্দরকেন্দ্রীক সড়কগুলোতে মালামাল লোড-আনলোডের জন্য টলি, ব্যাকফুড ট্রাক, কাভার্ডনভ্যান ইত্যাদি পরিবহন নির্দিষ্ট টুল রোডে যাতায়াত না করা, কাভার্ডভ্যানগুলোর ট্রাফিক সিগনাল অমান্য করা, পরিবহন খাতের সংগঠনের চাঁদা আদায়, ফুট ওভারব্রীজগুলোতে পারাপার না হওয়া ইত্যাদি সংগত কারনসহ আরো বেশ কয়েকটি কারনে এই যানজটের সৃষ্টি।

এই যানজট নিরসনের জন্য ট্রাফিক বিভাগ যথাসাধ্য নিরসনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে আমাদের জানান, উপ-পুলিশ কমিশনার কার্যালয়ের টিআই (প্রশাসন) মশিউর রহমান।

দিনের অবস্থা যেমনি হোক কিন্তু মাধ্যরাতের দৃশ্য যেন তার একেবারেই ব্যতিক্রমধর্মী। বন্দরে মালামাল লোড-আনলোডের জন্য ট্রাক, টলি, লং ভিকল এ পরিবহনগুলোর যানজট যেন দিনের যানজটকেও হার মানায়।

গতকাল রাত ২.৩০ মিনিটে সরজমিনে দেখা মেলে প্রায় ৬ মাইল জুড়ে এই দীর্ঘ যানজটের। এর ফলে ভোগান্তিতে পড়তে হয় জরুরী রোগী বহনকারী এ্যাম্বুলেন্সসহ সব ধরনের পরিবহনগুলোকেও।

বন্দরকেন্দ্রীক এসব পরিবহনগুলোর প্রবেশের জন্য শুধুমাত্র ১ নম্বর জেটি গেইটিই ব্যবহার করতে হয় ফলে এই বেহাল দশা যানজট মধ্যরাতের।

তবে কর্তব্যরত ডিউটি সার্জেন্ট এর নিকট এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি নানান অজুহাতে এড়িয়ে যান।