টাঙ্গাইলে দুই শিক্ষার্থী নিহত ঘটনার ঘাতক বাস চালক আটক

খায়রুল খন্দকর, টাঙ্গাইলঃ টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্বগোলচত্বর গোবিন্দগঞ্জ স্পেশাল নামের বাসের দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার প্রধান আসামী বাস চালক শাইনুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে বঙ্গবন্ধু পূর্ব থানা পুলিশ।

১৮ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার মধ্যরাতে গাইবান্ধা জেলা গোবিন্ধগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার আরজী সাহাপুর গ্রামের মৃত আলেপ উদ্দিন এর ছেলে।

ঢাকা-টাঙ্গাইল বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের গোলচত্তর এলাকায় রাস্তা পারাপারের সময় দুইজন শিক্ষার্থী নিহত হয় । দুজনই টাঙ্গাইল ম্যাটস এ অধ্যায়নরত এবং শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজে ইন্টার্নি করতেছিল।

নিহত ঘটনার খবর শুনে টাঙ্গাইলে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোপ এবং প্রতিবাদ মিছিল মানববন্ধন করে। জরিতদের গ্রেফতার এবং বিচারের দাবি জানায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা।

বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানার অফিসার ইনচার্জ, কাজী আয়ূবুর রহমান বলেন এসআই জায়েদ আব্দুল্লাহ বিন ছরওয়ার ও সঙ্গীয় ফোর্সদের সহযোগিতায় গোপন সংবাদ ভিত্তিতে গাইবান্ধা জেলা গোবিন্ধগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে (১৮ ফেব্রুয়ারি) মধ্যরাতে শাইনুল ইসলামকে গ্রেফতার করে এবং বিজ্ঞ আদালতে সোর্পদ করা হয়।

প্রসঙ্গতঃ গত ১৬ ফেব্রুয়ারি বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব পাড় গোলচত্বর এলাকায় বাসচাপায় মায়েন উদ্দিন হামিম ও সাদিয়া ইসলাম ওরফে নদী নামে দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়। উত্তরবঙ্গ থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী গোবিন্দগঞ্জ স্পেশাল (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৯৯৭৫ ) গাড়িটি সেতুর পূর্ব পাড় গোলচত্বর পার হওয়ার সময় দুই শিক্ষার্থীকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তারা নিহত হয়।

দুর্ঘটনায় ম্যাটসের দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার ঘটনার প্রতিবাদে গত ১৭ ফেব্রুয়ারী সোমবার দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সামনে শোক র‌্যালী ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন