টাঙ্গাইলে ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনায় ৬ জন নিহত

কামরান পারভেজ ইভান, টাঙ্গাইলঃ টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে অটোরিকশাকে ধাক্কা দেওয়ার পর একটি ডাম্প ট্রাকের সঙ্গে প্রাইভেটকারের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ছয়জন নিহত ও একজন আহত হয়েছেন।

৯ মার্চ (সোমবার) সকাল ১০টায় উপজেলার গোড়াই-সখিপুর সড়কের বেলতৈল বটতলা এলাকায় এ দুর্ঘটনায় নিহতরা সবাই অটোরিকশার যাত্রী ছিলেন বলে মির্জাপুরের দেওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই রফিকুল ইসলাম জানান।

নিহতরা হলেন- উপজেলার আজগানা ইউনিয়নের ঘাগড়াই গ্রামের খলিল মিয়ার ছেলে অটোরিকশা চালক হৃদয় (১৮), কুড়াতলী গ্রামের জহুর উদ্দিনের ছেলে সোনাম উদ্দিন (৬০), তার নাতি একই গ্রামের হাশেম আলীর ছেলে আশরাফুল (১০), ঘাগড়াই গ্রামের শিক্ষক আব্দুল জলিলের ছেলে জাকির হোসেন (৩৫), কুড়াতলী গ্রামের হাফিজ উদ্দিন (৬৫) ও তার মেয়ে রুনু আক্তার(২৫)।

আহত আনোয়র কুমুদিনী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে হাসপাতালের পরিচালক প্রদীপ কুমার রায় জানান। তার বাড়ি কুড়াতলী গ্রামে।

মির্জাপুরের দেওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির এসআই রফিকুল ইসলাম বলেন, হাটুভাঙ্গা থেকে বাঁশতৈলগামী মার্টিবোঝাই দ্রুতগতির একটি ডাম্প ট্রাক একটি যাত্রীবাহী একটি অটোকিশাকে পাশ কাটাতে গিয়ে ধাক্কা দেয়। পরে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি প্রাইভেটকারের সঙ্গে ডাম্প ট্রাকটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।

“এ সময় অটোরিকশা ও প্রাইভেটকারটি দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং অটোরিকশার চালক হৃদয় ও যাত্রী আশরাফুল ঘটনাস্থলেই মারা যান। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে সোনাম উদ্দিনের মৃত্যু হয়। আর বাকিরা হাসপাতালে নেওয়ার পর মারা যান। “

প্রাইভেটকারের চালক রাব্বি বলেন, “ডাম্প ট্রাকটি অটোরিকশাকে ওভারটেক করার সময় ধাক্কা দেয় এবং প্রাইভেটকারের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়।”

মির্জাপুর থানার ওসি মো. সায়েদুর রহমান বলেন, ট্রাকটি আটক করা হলেও চালক ও তার সহকারী পালিয়ে গেছে। নিহতদের লাশ আইনী প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন