টাঙ্গাইলে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে ৪ জনের জেল

ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে ৪ জনের জেল


টাঙ্গাইল প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ১১:৩৩ অপরাহ্ন, ২২ জুন ২০২২

টাঙ্গাইল ভূঞাপুরে যমুনা নদীর বিভিন্ন পয়েন্টে অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের দায়ে চার জনকে এক মাস করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

২২ জুন (বুধবার) দুপুরে ভূঞাপুর নৌ পুলিশ ফাঁড়ির অভিযানে ৪ জনকে আটকের পর এ দণ্ডাদেশ দেন উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শেখ আলাউল ইসলাম।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- অত্র উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের জিগাতলা গ্রামের বাছেদ তালুকদারের ছেলে মোঃ রহিম (২৫), একই ইউনিয়নের জিগাতলা গ্রামের মৃত রহমান আলী শেখের ছেলে জামাল শেখ (৫০), একই উপজেলার গাবসারা ইউনিয়নের বেলটিয়া গ্রামের আকবর আলী শেখের ছেলে মোঃ শফিকুল ইসলাম (৫০) এবং একই ইউনিয়নের গাবসারা গ্রামের মগদম শেখের ছেলে মোঃ জলিল (৪৫)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছ, প্রতিদিনই যমুনার পানি অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে ক্রমেই বন্যা পরিস্থিতি অবনতির দিকে যাচ্ছে। পানির বৃদ্ধির সাথে সাথে যমুনার বঙ্গবন্ধু সেতুপূর্ব পাড়ে উপজেলার গোবিন্দাসী, জিগাতলা, ভালকুটিয়া, চিতিলিয়াপাড়া গ্রামের অনেকাংশে দেখা দিয়েছে তীব্র ভাঙন। একদিকে প্রতিদিনই হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছে।

আর অপরদিকি থামে নি এই অবৈধ বালু উত্তোলন। এতে করে যমুনার নদী ভাঙ্গনে উপজেলার গোবিন্দাসী, গাবসারা, অর্জুনা ও নিকরাইলের ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রাম বিলীন হয়ে যাচ্ছে। অথচ ভাঙ্গন কবলিত এলাকা থেকে ড্রেজার ও নৌকা দিয়ে একটি চক্র অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছিল। স্থানীয়দের অভিযোগের প্রেক্ষিতে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে যমুনার গাবসারা চরে অভিযানে তাদেরকে আটক করে ভূঞাপুর নৌ পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা।

এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও শেখ আলাউল ইসলাম বলেন, আমরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি যে যমুনা নদীর বিভিন্ন অংশ থেকে একটি কুচক্রী মহল দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছিল । ভূঞাপুর নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ও ভূঞাপুর থানার পুলিশের সহযোগিতায় অভিযানে আমরা ৪ জনকে আটক করতে সক্ষম হই। পরে আটককৃত ৪ জনের প্রত্যেককে ১ মাস করে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। ভবিষ্যতেও এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান।

 


 আরও পড়ুনঃ

 আরও পড়ুনঃ

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন