নাটোরের বড়াইগ্রামে বাবা-ছেলের মারপিটে এক জনের মৃত্যু

বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি ঃ পরকীয়ার কারণে সৃষ্টি বিরোধের জেরে নাটোরের বড়াইগ্রামে আব্দুস সামাদ(৪৯) নামে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করেছে বাবা ও ছেলে।

নিহত সামাদ বনপাড়া উপজেলার  পৌরসভার গুনাইহাটি কচির মোড় এলাকার বাছের প্রামাণিকের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে নিহত সামাদের বাড়ির পাশে পুকুর পাড়ে একাকী পেয়ে লোহার রড ও বাঁশ দিয়ে মারপিট করে প্রতিবেশী মহিরুদ্দিনের ছেলে এহিয়া উদ্দিন (৪৫) ও তার ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (২৮)।

গুরুতর আহত অবস্থায় সামাদকে বড়াইগ্রাম স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির পর অবস্থার অবনতি হলে বুধবার সকালে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

এ খবরে পুলিশ সকালেই লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নাটোর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। এদিকে এই হত্যাকান্ডের পর বাবা ও ছেলে পলাতক রয়েছে বলে জানা যায়।

বড়াইগ্রাম থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুর রহিম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে পরকীয়া সম্পর্কের সাথে সামাদ জড়িত থাকার সন্দেহে তাকে মারপিট করা হয় এবং পরে তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনাতে নিহত আব্দুস সামাদের ভাই খলিলুর রহমান বাদি হয়ে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

আরও পড়ুনঃ নাটোরের বড়াইগ্রামে আলোচিত বাবু হত্যাকাণ্ডে ১৪ আসামিকে কারাগারে প্রেরণ

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন