ঢাকা ০৩:৪৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ১৬ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

নার্সারীর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা ধর্ষণকারির ফাঁসির দাবিতে র‌্যালি ও মানববন্ধন

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত সময় ০৮:৪৬:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯
  • / 22

পাবনার আটঘরিয়ার অধ্যক্ষ মফিজ উদ্দিন প্রি-ক্যাডেট স্কুলের নার্সারী শ্রেনীর ছাত্রী(৯)কে ধর্ষনের চেষ্টাকারি ও পূর্বের নামকরা ধর্ষক ওমর আলীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও ফাঁসির দাবিতে এক র‌্যালি ও মানববন্ধন পালন করেছে বিভিন্ন স্কুলে শিক্ষক শিক্ষিা ছাত্রছাত্রী ও এলাকাবাসী।

গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে দশটায় আটঘরিয়া বাজারে র‌্যালি বের হয়ে আটঘরিয়া থানার সামনে এসে প্রায় ঘন্টা ব্যাপি এক বিশাল মানববন্ধন পালন করেন।

এঘটনায় আটঘরিয়া থানায় ২০০০সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধনী/০৩)এর ৯(৪)(খ) ধারায় মামলা হয়েছে। এঘটনায় পুলিশ ধর্ষককারি ওমর আলীকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেলা হাজতে প্রেরন করেছে।

মামলার বিবরনে জানা গেছে, গত ১৬ জুলাই উপজেলার থানাপাড়া গ্রামের মো: ওয়াসিম আলীর মেয়ে ও অধ্যক্ষ মফিজ উদ্দিন প্রি-ক্যাডেট স্কুলের নার্সারী শ্রেনীর ছাত্রী (৯) স্কুল থেকে বাড়িতে আসে।

বিকালে একই গ্রামের মৃত-আলীম উদ্দিনের ছেলে লম্পট ওমর আলী (৫৫) এর মুদিখানা দোকানে খাতা কেনার জন্য যায় সে।

এই সুযোগে ওমর আলী বিভিন্ন ধরনের খাতা দেখানোর কথা বলে তাকে দোকানের ভিতরে ডেনে নিয়ে ভিতর থেকে দোকানের দরজা বন্ধ করে দেয়। এসময় লম্পট ওমর আলী মেয়েটিকে ধর্ষণের অপচেষ্টা চালায়।

এসময় আসাদ নামক এক ক্রেতা এসে বিষয়টি দেখে ফেলতে ওমর আলী আবল তাবল বলতে থাকে।

পরে মেয়েটি বিষয়টি তার বাবা-মার কাছে জানালে তারা আটঘরিয়া থানার একটি অভিযোগ দাখিল করেন।

এঘটনায় পরিপ্রেক্ষিতে থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।
৪র্থ ও ৫ম শ্রেনীর ছাত্র ইমন ও মীম জানান, এই অপরাধীর কঠোর শাস্তি হওয়া দরকার।

এই লোকটা এর আগেও অনেক ঘটনা ঘটিয়েছে। আমরা সবাই তার বিচার ও ফাঁসি চাই।
অধ্যক্ষ মফিজ উদ্দিন প্রি- ক্যাডেট স্কুলের অধ্যক্ষ মনিরুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি আমি শুনেছি।

সে আমার স্কুলের নার্সারী শ্রেনীর একজন ভাল ছাত্রী। তার অভিভাবককে আইনের আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দিয়েছি। আমি এর দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি সহ ফাঁসির দাবি করছি।

শিখিক্ষা সেলিনা খাতুন ও হালিমা খাতুন জানান, এটা একটা জঘন্যতম অপরাধ এর কঠোর শাস্তি পাওয়া দরকার বলে মনে করছেন তারা।

ওই এলাকার কাউন্সিলর নিরোদ কর্মকর্তা নিরু জানান, বিষয়টি একটা ন্যাক্কার জনক ঘটনা। সে মাঝে মধ্যেই এধরনের ঘটনা ঘটায়। আমি এর সঠিক বিচার দাবি করছি।

এলাকাবাসি সূত্রে জানান, ধর্ষক ওমর আলী দীর্ঘ দিন ধরে এই ধরনের ঘটনার সাথে জড়িত।

সে এর আগেও এই গ্রামে অপরাধ মূলক কর্মকান্ড সাথে জড়িত। কিন্ত এর কোন সঠিক বিচার হয় না। তবে তারা এই অপরাধীর ফাঁসির দাবি করেন

নার্সারীর ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা ধর্ষণকারির ফাঁসির দাবিতে র‌্যালি ও মানববন্ধন

প্রকাশিত সময় ০৮:৪৬:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ জুলাই ২০১৯

পাবনার আটঘরিয়ার অধ্যক্ষ মফিজ উদ্দিন প্রি-ক্যাডেট স্কুলের নার্সারী শ্রেনীর ছাত্রী(৯)কে ধর্ষনের চেষ্টাকারি ও পূর্বের নামকরা ধর্ষক ওমর আলীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও ফাঁসির দাবিতে এক র‌্যালি ও মানববন্ধন পালন করেছে বিভিন্ন স্কুলে শিক্ষক শিক্ষিা ছাত্রছাত্রী ও এলাকাবাসী।

গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে দশটায় আটঘরিয়া বাজারে র‌্যালি বের হয়ে আটঘরিয়া থানার সামনে এসে প্রায় ঘন্টা ব্যাপি এক বিশাল মানববন্ধন পালন করেন।

এঘটনায় আটঘরিয়া থানায় ২০০০সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সংশোধনী/০৩)এর ৯(৪)(খ) ধারায় মামলা হয়েছে। এঘটনায় পুলিশ ধর্ষককারি ওমর আলীকে গ্রেপ্তার করে আদালতের মাধ্যমে জেলা হাজতে প্রেরন করেছে।

মামলার বিবরনে জানা গেছে, গত ১৬ জুলাই উপজেলার থানাপাড়া গ্রামের মো: ওয়াসিম আলীর মেয়ে ও অধ্যক্ষ মফিজ উদ্দিন প্রি-ক্যাডেট স্কুলের নার্সারী শ্রেনীর ছাত্রী (৯) স্কুল থেকে বাড়িতে আসে।

বিকালে একই গ্রামের মৃত-আলীম উদ্দিনের ছেলে লম্পট ওমর আলী (৫৫) এর মুদিখানা দোকানে খাতা কেনার জন্য যায় সে।

এই সুযোগে ওমর আলী বিভিন্ন ধরনের খাতা দেখানোর কথা বলে তাকে দোকানের ভিতরে ডেনে নিয়ে ভিতর থেকে দোকানের দরজা বন্ধ করে দেয়। এসময় লম্পট ওমর আলী মেয়েটিকে ধর্ষণের অপচেষ্টা চালায়।

এসময় আসাদ নামক এক ক্রেতা এসে বিষয়টি দেখে ফেলতে ওমর আলী আবল তাবল বলতে থাকে।

পরে মেয়েটি বিষয়টি তার বাবা-মার কাছে জানালে তারা আটঘরিয়া থানার একটি অভিযোগ দাখিল করেন।

এঘটনায় পরিপ্রেক্ষিতে থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।
৪র্থ ও ৫ম শ্রেনীর ছাত্র ইমন ও মীম জানান, এই অপরাধীর কঠোর শাস্তি হওয়া দরকার।

এই লোকটা এর আগেও অনেক ঘটনা ঘটিয়েছে। আমরা সবাই তার বিচার ও ফাঁসি চাই।
অধ্যক্ষ মফিজ উদ্দিন প্রি- ক্যাডেট স্কুলের অধ্যক্ষ মনিরুল ইসলাম জানান, ঘটনাটি আমি শুনেছি।

সে আমার স্কুলের নার্সারী শ্রেনীর একজন ভাল ছাত্রী। তার অভিভাবককে আইনের আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দিয়েছি। আমি এর দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি সহ ফাঁসির দাবি করছি।

শিখিক্ষা সেলিনা খাতুন ও হালিমা খাতুন জানান, এটা একটা জঘন্যতম অপরাধ এর কঠোর শাস্তি পাওয়া দরকার বলে মনে করছেন তারা।

ওই এলাকার কাউন্সিলর নিরোদ কর্মকর্তা নিরু জানান, বিষয়টি একটা ন্যাক্কার জনক ঘটনা। সে মাঝে মধ্যেই এধরনের ঘটনা ঘটায়। আমি এর সঠিক বিচার দাবি করছি।

এলাকাবাসি সূত্রে জানান, ধর্ষক ওমর আলী দীর্ঘ দিন ধরে এই ধরনের ঘটনার সাথে জড়িত।

সে এর আগেও এই গ্রামে অপরাধ মূলক কর্মকান্ড সাথে জড়িত। কিন্ত এর কোন সঠিক বিচার হয় না। তবে তারা এই অপরাধীর ফাঁসির দাবি করেন