ঢাকা ০১:৫৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

নিখোঁজের ৭ ঘণ্টা পর শিশু উদ্ধার

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত সময় ০৩:১৬:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯
  • / 8

চলনবিল প্রতিনিধি: উপজেলার পার ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের চক্রপাড়া গ্রামে শুক্রবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে বিধি (১০) নামে ৩য় শ্রেণীর এক শিশু নিখোঁজ হয়।

নিজের বাড়ি থেকে ১০০ গজ দূরে চাচার বাড়িতে বেড়াাতে যায় শিশু বিথী। এরপর ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও বাড়িতে না ফেরায় দুশ্চিন্তায় পরে মা-বাবা। খোঁজ নিয়ে জানতে পারে বিথী আধা ঘন্টা আগেই বাড়ি থেকে চাচার বের হয়ে গেছে।

আশেপাশের বাড়িতে বিথীকে খোঁজাখুঁজি শুরু করে সবাই। কিন্তু কোথাও তাকে পাওয়া যায়না।

অবশেষে থানা পুলিশে খবর দেয়া হয়। পুলিশ রাত আটটার থেকে শিশুটির বাড়ির আশেপাশে সহ বিভিন্ন এলাকায় অনুসন্ধান চালিয়ে ব্যর্থ হন। পরে পুলিশ বীথির বাবা-মার কাছে বিস্তারিত শুনে বিথীর চাচা দুলাল ও তার স্ত্রীকে সন্দেহ করেন।

এতে দুলাল ও তার স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দ্রুত বীথিকে বাবা-মার কাছে ফেরত দিতে বলেন। নইলে তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার হুমকি দেয় পুলিশ।

বিথী ওই গ্রামের হেলাল উদ্দিনের মেয়ে ও ভেড়ামারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণীর ছাত্রী।

এই অবস্থায় মেয়েকে না পেয়ে আরও হতাশ হয়ে পরেন বাবা-মা সহ পরিবারের অন্যরা। একপর্যায়ে রাত একটার দিকে কে বা কাহারা বিথীকে বাড়ির পাশের সড়কে রেখে যায় ।

তখন অনেকটা সংজ্ঞাহীন অবস্থায় ছিল বিথী। এ সময় বিথী কোনো কথা বলতে পারছিল না। পরে পুলিশ গিয়ে শিশুটির সাথে কথা বলে তথ্য উদঘাটন করতে চাইলেও সম্ভব হয়নি।

এমনকি শনিবার দুপুর পর্যন্ত পরিষ্কারভাবে কথা বলতে পারেনি শিশুটি। পুলিশের বক্তব্য শিশুটি সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে কথা বললেই নিখোঁজের ঘটনাটি পুরোপুরি পরিষ্কার হবে। তখন পরিবার চাইলে এ ব্যাপারে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ভাঙ্গুড়া থানার ডিউটি অফিসার এসআই রতন সরকার বলেন, শিশুটি নিখোঁজ হলে তার চাচা ও চাচিকে সন্দেহ করা হয়।

শিশুটিকে ফেরত দিতে ওই চাচা ও চাচিকে এক ঘন্টার আল্টিমেটাম দেওয়া হয়। এর সাওড় তিন ঘন্টা পরে শিশুটিকে পাওয়া যায়। এখন পরিবার চাইলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

নিখোঁজের ৭ ঘণ্টা পর শিশু উদ্ধার

প্রকাশিত সময় ০৩:১৬:৩০ অপরাহ্ন, শনিবার, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯

চলনবিল প্রতিনিধি: উপজেলার পার ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের চক্রপাড়া গ্রামে শুক্রবার সন্ধ্যা ছয়টার দিকে বিধি (১০) নামে ৩য় শ্রেণীর এক শিশু নিখোঁজ হয়।

নিজের বাড়ি থেকে ১০০ গজ দূরে চাচার বাড়িতে বেড়াাতে যায় শিশু বিথী। এরপর ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও বাড়িতে না ফেরায় দুশ্চিন্তায় পরে মা-বাবা। খোঁজ নিয়ে জানতে পারে বিথী আধা ঘন্টা আগেই বাড়ি থেকে চাচার বের হয়ে গেছে।

আশেপাশের বাড়িতে বিথীকে খোঁজাখুঁজি শুরু করে সবাই। কিন্তু কোথাও তাকে পাওয়া যায়না।

অবশেষে থানা পুলিশে খবর দেয়া হয়। পুলিশ রাত আটটার থেকে শিশুটির বাড়ির আশেপাশে সহ বিভিন্ন এলাকায় অনুসন্ধান চালিয়ে ব্যর্থ হন। পরে পুলিশ বীথির বাবা-মার কাছে বিস্তারিত শুনে বিথীর চাচা দুলাল ও তার স্ত্রীকে সন্দেহ করেন।

এতে দুলাল ও তার স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দ্রুত বীথিকে বাবা-মার কাছে ফেরত দিতে বলেন। নইলে তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার হুমকি দেয় পুলিশ।

বিথী ওই গ্রামের হেলাল উদ্দিনের মেয়ে ও ভেড়ামারা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণীর ছাত্রী।

এই অবস্থায় মেয়েকে না পেয়ে আরও হতাশ হয়ে পরেন বাবা-মা সহ পরিবারের অন্যরা। একপর্যায়ে রাত একটার দিকে কে বা কাহারা বিথীকে বাড়ির পাশের সড়কে রেখে যায় ।

তখন অনেকটা সংজ্ঞাহীন অবস্থায় ছিল বিথী। এ সময় বিথী কোনো কথা বলতে পারছিল না। পরে পুলিশ গিয়ে শিশুটির সাথে কথা বলে তথ্য উদঘাটন করতে চাইলেও সম্ভব হয়নি।

এমনকি শনিবার দুপুর পর্যন্ত পরিষ্কারভাবে কথা বলতে পারেনি শিশুটি। পুলিশের বক্তব্য শিশুটি সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে কথা বললেই নিখোঁজের ঘটনাটি পুরোপুরি পরিষ্কার হবে। তখন পরিবার চাইলে এ ব্যাপারে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ভাঙ্গুড়া থানার ডিউটি অফিসার এসআই রতন সরকার বলেন, শিশুটি নিখোঁজ হলে তার চাচা ও চাচিকে সন্দেহ করা হয়।

শিশুটিকে ফেরত দিতে ওই চাচা ও চাচিকে এক ঘন্টার আল্টিমেটাম দেওয়া হয়। এর সাওড় তিন ঘন্টা পরে শিশুটিকে পাওয়া যায়। এখন পরিবার চাইলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।