নোয়াখালী সরকারি কলেজের তাসলিমা নামের এক শিক্ষার্থীর মৃত্যু

মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন, নোয়াখালীঃ নোয়াখালী জেলার সুবর্ণচরে চরক্লার্ক ইউনিয়ের কেরামতপুর গ্রামের বাসিন্দা। বিয়ের পিঁড়িতে বসা হলো না, নোয়াখালী সরকারি কলেজের ছাত্রী তাসলিমার, নিহত তাসলিমা এক জন শিক্ষিকাও ছিলেন।

কিছুদিন পর বিয়ে, দেখছিলেন নতুন জীবনের স্বপ্ন, চারিদিকে আনন্দের জোয়ার, ঝিলিক বাতি, অনালোকিত বাড়ি ঘর। নিজের বিয়ের দাওয়াত কার্ড নিয়ে পাশের একটি স্কুলে দাওয়াত দেওয়ার জন্য যাওয়ার পথে সড়ক দূর্ঘটনায় থমকে গেলো সব কিছু, লাল শাড়ীর বদলে সাদা শাড়ী পরে চিরস্থায়ী বাড়ির বাসিন্ধা হলেন বাবা হারা এতিম স্কুল শিক্ষিকা তাসলিমা।

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার তাসলিমা আক্তার (২৩), নামে এক স্কুল শিক্ষিকার মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার ৮নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে চৌরাস্তা এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

৮নং মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো.আবুল কালাম আজাদ জানান, নিহত শিক্ষিকা চরক্লার্ক ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের কেরামতপুর গ্রামের মৃত নূর রহমান’র মেয়ে এবং নোয়াখালী সরকারি কলেজের পড়ালেখার পাশাপাশি সুবর্ণচর উপজেলার দক্ষিণ পূর্ব চর লক্ষী আশ্রয়ণ বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

আগামী বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) তার বিবাহের দিন ধার্য ছিল। হোন্ডা যোগে মামাতো ভাইয়ের সাথে নিজের বিয়ের দাওয়াত কার্ড নিয়ে পাশের একটি স্কুলে দাওয়াত দেওয়ার জন্য যাওয়ার পথে চৌরাস্তা এলাকার একটু সামনে কুকুরের সাথে মোটরসাইকেলের ধাক্কা লেগে মোটরসাইকেল থেকে ছিটকে পড়ে ঘটনাস্থলেই ওই শিক্ষিকার মৃত্যু হয়। তবে বাইক চালক নিহত শিক্ষিকার মামাতো ভাই আহত হননি।

চরজব্বর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহেদ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন