পাবনার ইছামতি নদীর উচ্ছেদ আতঙ্কে হ্নদরোগে আক্রান্ত গৃহবধুর মৃত্যু

শাহজাদপুরে স্মার্ট কার্ড বিতরনে পরিদর্শন করলেন নির্বাচন কমিশনার বেগম রাশেদা সুলতানা।

স্বতঃকণ্ঠ অনলাইন ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৩১ অপরাহ্ন, ২১ মে ২০২২

পাবনার ইছামতি নদী পাড়ে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান আতঙ্কে এক পরিবারে গৃহবধু হ্নদযন্ত্রের ক্রীয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকালের দাবী করেছেন পরিবারের পক্ষ থেকে।

গত শুক্রুবার বেলা ১১টায় এ ঘটনা ঘটেছে বলে দাবী করেন পরিবারের সদস্যরা। পরিবারের পক্ষ থেকে দাবী করা হয়েছে, গত বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে ইছমতি নদী পাড়ে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদাভিযান পরিচালনার জন্য মরহুমার বাড়ির সামনে ভেকু নিয়ে অবস্থান করার পর থেকে গোপালপুর টাউনহল পাড়ার জাকির হোসেন ওরফে কানু সরদারের স্ত্রী ফাতেমা খাতুন (৫৮) উচ্ছেদ আতঙ্কে অসুস্থবোধ করছিলেন।

তাঁর অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় শুক্রুবার বেলা ১১টার দিকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এই মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছাঁয়া নেমে আসে।

ওই দিন বাদ মাগরিব এলাকার জান্নাতুল মাওয়া জামে মসজিদে নামাজে জানাযা শেষে আরিফপুর গোরস্থানে দাফন করা হয়। মরহুমার স্বাামী জাকির হোসেন ওরফে কানু সরদার জানান, ৪টি রেকর্ডিয় সম্পত্তির মালিকানা সূত্রে ওই বাড়িতে দীর্ঘ ৭০ বছর বসবাস করে আসছিলেন। বাড়িটি উচ্ছেদ আতঙ্কে তাঁর স্ত্রীর মৃত্যু হয় বলে দাবী করেন মরহুমার স্বামী কানু সরদার।

এদিকে এই মৃত্যুর ঘটনায় ইছামতি নদী পাড়ের বৈধ বসতিদের স্বার্থ সংরক্ণ কমিটির সভাপতি মো.মাসুদুর রহমান মিন্টুসহ নেতৃন্দগণ শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে বলেন, সম্প্রতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আতাউর রহমানসহ আরো ৮জন ইছামতি নদীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ আতঙ্কে মারা গেছেন। – আইএনএস

 আরও পড়ুনঃ

 আরও পড়ুনঃ

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন