পাবনার চাটমোহরে জাংলায় বেগুন চাষ

চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধি:জমিতে বেগুন গাছে মাটির সামান্য উপরে বেগুন ঝুলতে দেখা যায়। কিন্তু এবার দেখা গেল জাংলায় ঝুলছে বেগুন। একটিমাত্র বেগুন গাছ এত বড় হয়েছে যে তার জন্য জাংলা তৈরি করে সেখানে তুলে দেয়া হয়েছে। সেই জাংলায় ঝুলন্ত বেগুন আকৃষ্ট করছে সবাইকে।

পাবনার চাটমোহর উপজেলার মথুরারপুর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে কৃষক সেলিম শেখের বাড়িতে বেগুন গাছটি।

আলাপকালে সেলিম শেখ বলেন, কাঁটাযুক্ত বেগুন খুব সুস্বাদু হয়। চার মাস আগে শখের বসে এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে ওই জাতের একটি বেগুন গাছ এনে বাড়ির উঠানে এক কোনে লাগিয়ে দেই।

গাছটি দ্রুত বড় হচ্ছে, ডালপালা ছড়িয়ে পড়ছে। নিজেই বুদ্ধি করে একটি জাংলা তৈরি করে গাছটির ডালপালা জাংলার উপরে দিয়ে দেই। জাংলার উপরেই চারদিকে বেগুন গাছ লতার মতো ছড়িয়ে পড়ে। মাস কয়েক আগে গাছটিতে বেগুন ধরা শুরু করে।

সেলিম বলেন, এক মাসে এক মনের বেশি বেগুন তিনি বিক্রি করেছেন। ৭০ টাকা থেকে শুরু করে ৪০ টাকা কেজি পর্যন্ত তিনি বেগুন বিক্রি করেছেন।

আধা মনের বেশি বেগুন তিনি নিজে খেয়েছেন ও আত্মীয়দের দিয়েছেন। তিনি নিজেও ভাবেননি যে বেগুন গাছের জন্য জাংলা দিতে হবে। আবার একটি বেগুন গাছ থেকে এত পরিমাণ বেগুন তিনি পাবেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবু বক্কার সিদ্দিক বলেন, আমরাও কৃষক মানুষ। মাটিতে বেগুন গাছ লাগানো ও ফলন হয় বলেই জানি। এভাবে জাংলায় যে বেগুন হতে পারে এটা প্রথম দেখলাম।

বেগুন গুলো খেতেও সুস্বাদু। বিষয়টি কৃষি বিভাগকে জানানো হয়েছে । এই বেগুনের জাতটি কি, সবার মাঝে আবাদ ছড়িয়ে দেয়া যায় কি না, তা খতিয়ে দেখার দাবি জানিয়েছি।

চাটমোহর উপজেলার উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা আবু সাঈদ বলেন, স্থানীয় ইউপি সদস্য আমাকে বিষয়টি জানিয়েছে । আমি সেই বাড়িতে গিয়ে সবকিছু দেখবো। বেগুনের জাতটি সম্পর্কে তারপর বিস্তারিত বলা সম্ভব হবে।

আরও পড়ুনঃ পাবনার আটঘরিয়াতে র‌্যাব কর্তৃক সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন