পাবনার সাঁথিয়ার কাশিনাথপুর বাজারের রাস্তা নিয়ে দু’মার্কেটের মালিকের উত্তোজনা বিরাজ করছে

সাঁথিয়া(পাবনা)প্রতিনিধিঃ সাঁথিয়ার কাশিনাথপুর বাজারে নিজ বাড়ি ও মার্কেটের রাস্তা না রেখে অন্যের রাস্তা ব্যবহার করা নিয়ে উত্তোজনা বিরাজ করছে। যে কোন মুর্হুতে রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষের আশংকা করছে ব্যবসায়ী মহল।

আবুল কালাম আজাদ নিজের সুবিধা আদায়ে প্রতিপক্ষকে দমিয়ে রাখার জন্য আদালত থেকে পিটিশন মামলা নং-৩৯৫/২১.(সাঁথিয়া) এর মাধ্যমে ১৪৪ ধারা জারি করেছে।

এ ব্যাপারে সাঁথিয়া উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার সরোজমিন তদন্ত করে আদালতে প্রতিরেদন দাখিল করেছেন। উক্ত প্রতিবেদনে প্রতিপক্ষ জহির গংদের সীমানা নিধারণ না করে বিশেষ ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে একটি প্রতিবেদন দাখিল করেছেন। ফলে যে কোন মুহুর্তে রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষ বেধে যেতে পারে।

সরোজমিনে গেলে দেখা যায়, কাশিনাথপুর বাজারে পপুলার ট্রেডাস মার্কেটের মালিক বাদী আবুল কালাম আজাদ তার সীমানা ঘেষে মার্কেটের বিল্ডিং নির্মাণ করেন। ফলে তার দোকানের লোকজন জহির সুপার স্বণের মার্কেটের রাস্তা ব্যবহার করে আসছেন।

জহির সুপার স্বণের মার্কেটের মালিক তার মার্কেটের কাজ শুরু করার জন্য রাস্তার এক পাশে^ ইট রেখে কাজ শুরু করেন। এতে পপুলার ট্রেডাস মার্কেটের লোকজন চলাচল কমে যায়।

সুবিধা আদায়ের জন্য পপুলার ট্রেডাস মার্কেটের মালিক সুচতুর আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে জহির সুপার স্বণের মার্কেটের মালিকের বিরুদ্ধে আদালতে পিটিশন মামলা নং-৩৯৫/২১.(সাঁথিয়া) এর মাধ্যমে ১৪৪ ধারা জারি করেছে।

জহির সুপার স্বণের মার্কেটের মালিক বলেন, আমার নিজস্ব জায়গায় নিজস্ব রাস্তার পাশে^ সাময়িকভাবে ইট নামিয়ে মার্কেটের কাজ শুরু করছি। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে কাজ বন্ধ রাখার জন্য আদালতে মাধ্যমে ১৪৪ ধারা জারি করেছে।

পপুলার ট্রেডাস মার্কেটের মালিক আবুল কালাম আজাগদ বলেন, মাকেটের সামনের রাস্তা সবার ব্যবহার করতে পারবে। এছাড়াও আমি মার্কেট করার সময় ৫ ফুট জায়গা রাস্তার জন্য রেখেছি। যা সীমানা নির্ধারণ করলে বের হয়ে আসবে।

এজন্য রাস্তার উপর ইট রাখায় তার বিরুদ্ধে আদালতে শান্তি ভঙ্গের আশংকায় ১৪৪ ধারার আবেদন করায় আদালতের মাধ্যমে তা জারি হয়েছে।
এ ঘটনায় উক্তস্থানের মালিক ও ব্যবসায়ীদের মধ্যে চাপা উত্তোজনা বিরাজ করছে ।

আরও পড়ুনঃ পাবনার চাটমোহরে মানিক কাজী স্মৃতি ব্যাডমিন্টন টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন সাহা ট্রেডিং

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন