পাবনায় ফুলের সৌন্দর্য্যপূর্ণ পুষ্প মেলার সমাপনী ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠিত

জুলফিকার আলী, পাবনাঃ পাবনাস্থ খামারবাড়ি, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, উপপরিচালক কর্যালয় চত্বরে ২৫ জানুয়ারী হতে শুরু হয়ে ১৪ দিন ব্যাপী “আমার বাড়ি আমার ঘর, ফুল চাষে স্বনির্ভর” এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে ফুলের সৌন্দর্য্যপূর্ণ সর্বত্র ছড়িয়ে গত ০৮ ফেরুয়ারীতে পুষ্প মেলার সমাপনী ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্টিনের মাধ্যমে শেষ হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে পাবনার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক কৃষিবিদ মো. আজাহার আলী এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পাবনার জেলা প্রশাসক মো. কবীর মাহমুদ। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পাবনাস্থ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপ পরিচালক কৃষিবিদ মো. সামসুল আলম,পাবনা জেলা শাখার বাংলাদেশ কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পদক মো. শাহাদত হোসেন।

প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন পাবনার জেলা প্রশাসক মো. কবীর মাহমুদ, তিনি বলেন, পাবনা জেলা খাদ্যে স্বয়ং সম্পূর্ন সেহেতু ফুল আবাদেও আমাদেরকে স্বয়ং সম্পূর্ণ হতে হবে। ফুল শুধু সৌন্দর্য বর্ধনের প্রতীক নয়, বর্তমান সময়ে ফুল একটি অত্যন্ত লাভজনক অর্থকরী ফসল। চাষীরা তাদের ফসল সহ অন্যান্য আবাদের পাশাপাশি ফুল আবাদ করে অর্থনৈতিকভাবে দারুন লাভবান হতে পারে। এমনকি উপজেলাতেও ফুলের চাহিদা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি নার্সারী মালিক সমিতি এবং উপস্থিত চাষীসহ সকলকে ফুল আবাদের দিকে নজর দিতে আহবান জানান।

মেলায় ১৭ টি স্টলে ফুলের সৌন্দর্য্যপূণ ও সুসজ্জিত ভাবে ফুল ও ফলের চারা সাজিয়ে রেখে বিক্রী করা হয়।

পাবনাস্থ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ পরিচালক কৃষিবিদ মো. আজাহার আলী তার এক বক্তব্যে জানান, এবার গত বছরের চেয়ে মেলায় অনেক বেশী ফুলের চারা বিক্রী হয়েছে। প্রায় ১৫-২০ লক্ষ টাকার ১০ হাজার ২ শত টি চারা বিক্রী হয়েছে। মেলায় গোলাপ, বেলী, জবা ও দেশী বিদেশী বিভিন্ন জাতের ফুল দেখতে ভীর জমিয়ে ছিল তরুণ-তরুণী সহ বিভিন্ন বয়সের মানুষ। শিশুরাও বেশ আগ্রহী হয়ে ফুলের চারা ক্রয় করেছে।

এবারের মেলায় ১৪ দিনই দর্শনার্থী এবং ক্রেতার উপচেপড়া ভীড় লক্ষ্য করা গিয়েছে । বিশেষ করে প্রযুক্তি প্রদর্শণ, ফুল চাষে উৎসাহিত করা, ফুল চারা বপনের মাধ্যমে বাড়ির সৌন্দর্য বৃদ্ধি, বানিজ্যিক ভিত্তিতে ফুল উৎপাদনে চাষীদের সহায়তা প্রদান এবং উপহার হিসেবে ফুলের বহুল প্রচার, ফুলের রোগ- বালাই, পোকা- মাকড় দমন সম্পর্কে দর্শনার্থীদের ধারনা প্রদান, রোপণ কৌশল ও পাবনা জেলার বিভিন্ন ফুল ও ফসলের আবাদ সমৃদ্ধ ম্যাপের মাধ্যমে ধারনা প্রদান মেলাকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছে।

কৃষি তথ্য সার্ভিস, পাবনা কর্তৃক মেলা চলাকালীন-প্রতিদিন বিকাল ৩.০০টা থেকে রাত্রী ৮.০০টা পযর্ন্ত ফুল চাষাবাদ ও উৎপাদন, পরিচর্যা, ফুলের রোগ- বালাই, পোকা- মাকড় দমন সম্পর্কে ভিডিও/সিনেমা,নাটক-নাটিকা দর্শনার্থীদের প্রদর্শন প্রদান হয়।

সবমিলে এবারের মেলা বিনোদন, প্রযুুক্তি শিক্ষা ও ক্রয় বিক্রয়ে দর্শক ক্রেতাদের মনোযোগ আকর্ষণ করতে সমর্থ হয়েছে। শেষে ষ্টল মালিক সহ আকর্ষনীয় পন্য সরবরাহকারীদেরকে মূল্যায়নের মাধ্যমে পুরস্কৃত করা হয়।

অন্যদের মধ্যে সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্টানে পুষ্পমেলা বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ মিল্টন, জেলা ডিপ্লোমা কৃষিবিদ ইনষ্টিটিউশনের সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ শিখন, পাবনা জেলা শাখার বাংলাদেশ কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পদক মো. শাহাদত হোসেন প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বিভিন্ন ইউনিয়নে র্কমরত উপসহকারী কৃষি র্কমর্কতাগণ, কৃষি তথ্য সার্ভিস আঞ্চলিক অফিস পাবনার এআইসিও মো. জুলফিকার আলী ও আশিষ তরফদার এবং ও জেলা নার্সারী মালিক সমিতির সদস্যবৃন্দ এবং স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও বিভিন্ন মিডিয়া সাংবাদিকবৃন্দ। অনুষ্টানটি সঞ্চালন করেন উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ এ.এ মাসুম বিল্লাহ।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন