ঢাকা ১০:৪৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

পাবনায় শিশু ধর্ষন মামলার আসামী গ্রেফতার

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত সময় ০৮:২৬:৫৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০
  • / 11

ডেস্ক নিউজঃ গতকাল সকাল ১২.৩০ ঘটিকার সময় র‌্যাব-১২, সিপিসি-২ পাবনা, র‌্যাবের একটি বিশেষ আভিযানিক দল প্রযুক্তির সহয়তায় ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার মোঃ আমিনুল কবীর তরফদার এর নেতৃত্বে পাবনা জেলার সদর থানাধীন লাইব্রেরী বাজার জনতা ব্যাংক এর সামনে হতে শিশু ধর্ষণকারী আসামীকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃত আসামী মোঃ কাবিল সরদার (৩০), পিতা- মোঃ আকবর আলী সরদার, সাং- কামারগ্রাম, থানা- পাবনা সদর, জেলা- পাবনা। ধারা- ৯(১) ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০৩ এ পাবনা সদর থানার মামলা নং- ৫৮/১০৫০, তারিখ ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রিঃ এর আসামী।

ঘটনার বিবরণে জানা যায় জনৈক মোঃ মতিউর রহমান এর শিশু কন্যা (১১) কামারগ্রাম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেনীতে ছাত্রী। স্কুলে যাতাযাতের পথে স্কুলের দপ্তরী একই এলাকার মোঃ কাবিল সরদার (৩০), পিতা- মোঃ আকবর আলী সরদার, সাং- কামারগ্রাম, থানা- পাবনা সদর, জেলা- পাবনা তার শিশু কন্যাকে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ভাবে উত্যক্ত করিত ও কু প্রস্তাব দিত।

গত ইং ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখ সকাল অনুমান ০৮.৩০ ঘটিকার সময় উক্ত মামলার বাদীর শিশু কন্যা কোচিং সেন্টারে প্রাইভেট পড়া শেষে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়।

পথিমধ্যে প্রাইমারী স্কুলের সম্মুখে উক্ত ভিকটিম পৌঁছিলে মামলার একমাত্র আসামী মোঃ কাবিল সরদার (৩০) উক্ত শিশু কন্যাকে অস্ত্রের মূখে জিম্মী করে তাকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক ধর্ষন করে। এবং প্রকাশ করে যে, এই ঘটনা অন্য কাউকে বলিলে তোর বাবাকে গুলি করে মেরে ফেলব।

এই ঘটনার প্রেক্ষিতে পাবনা সদর থানায় উক্ত মামলা রুজু করা হয়।

এজাহার দায়ের পূর্বক মামলার বাদী ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার অনুরোধের প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১২,সিপিসি-২, পাবনা এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার মোঃ আমিনুল কবীর তরফদার এর নেতৃত্বে উক্ত আসামীকে গ্রেফতারের নিমিত্তে র‌্যাবের একটি বিশেষ দল মাঠে নামে।

পরবর্তীতে তথ্য প্রযুক্তির সহয়তায় আজ ১২.৩০ ঘটিকার সময় উক্ত ঘটনাস্থল হতে আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

উক্ত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পাবনা জেলার সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

পাবনায় শিশু ধর্ষন মামলার আসামী গ্রেফতার

প্রকাশিত সময় ০৮:২৬:৫৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০

ডেস্ক নিউজঃ গতকাল সকাল ১২.৩০ ঘটিকার সময় র‌্যাব-১২, সিপিসি-২ পাবনা, র‌্যাবের একটি বিশেষ আভিযানিক দল প্রযুক্তির সহয়তায় ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার মোঃ আমিনুল কবীর তরফদার এর নেতৃত্বে পাবনা জেলার সদর থানাধীন লাইব্রেরী বাজার জনতা ব্যাংক এর সামনে হতে শিশু ধর্ষণকারী আসামীকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারকৃত আসামী মোঃ কাবিল সরদার (৩০), পিতা- মোঃ আকবর আলী সরদার, সাং- কামারগ্রাম, থানা- পাবনা সদর, জেলা- পাবনা। ধারা- ৯(১) ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০৩ এ পাবনা সদর থানার মামলা নং- ৫৮/১০৫০, তারিখ ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রিঃ এর আসামী।

ঘটনার বিবরণে জানা যায় জনৈক মোঃ মতিউর রহমান এর শিশু কন্যা (১১) কামারগ্রাম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেনীতে ছাত্রী। স্কুলে যাতাযাতের পথে স্কুলের দপ্তরী একই এলাকার মোঃ কাবিল সরদার (৩০), পিতা- মোঃ আকবর আলী সরদার, সাং- কামারগ্রাম, থানা- পাবনা সদর, জেলা- পাবনা তার শিশু কন্যাকে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ভাবে উত্যক্ত করিত ও কু প্রস্তাব দিত।

গত ইং ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখ সকাল অনুমান ০৮.৩০ ঘটিকার সময় উক্ত মামলার বাদীর শিশু কন্যা কোচিং সেন্টারে প্রাইভেট পড়া শেষে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হয়।

পথিমধ্যে প্রাইমারী স্কুলের সম্মুখে উক্ত ভিকটিম পৌঁছিলে মামলার একমাত্র আসামী মোঃ কাবিল সরদার (৩০) উক্ত শিশু কন্যাকে অস্ত্রের মূখে জিম্মী করে তাকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর পূর্বক ধর্ষন করে। এবং প্রকাশ করে যে, এই ঘটনা অন্য কাউকে বলিলে তোর বাবাকে গুলি করে মেরে ফেলব।

এই ঘটনার প্রেক্ষিতে পাবনা সদর থানায় উক্ত মামলা রুজু করা হয়।

এজাহার দায়ের পূর্বক মামলার বাদী ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার অনুরোধের প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১২,সিপিসি-২, পাবনা এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার মোঃ আমিনুল কবীর তরফদার এর নেতৃত্বে উক্ত আসামীকে গ্রেফতারের নিমিত্তে র‌্যাবের একটি বিশেষ দল মাঠে নামে।

পরবর্তীতে তথ্য প্রযুক্তির সহয়তায় আজ ১২.৩০ ঘটিকার সময় উক্ত ঘটনাস্থল হতে আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

উক্ত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য পাবনা জেলার সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।