ফরিদপুরের এম এ আজিজ হাই স্কুল ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রিড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ আনন্দ ঘন পরিবেশে সকাল থেকে দিনব্যাপী খেলাধুলা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় আনন্দ উল্লাসে মাতে বিদ্যালয়টির শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীরা।

ফরিদপুর সদর উপজেলার গেরদা ইউনিয়নের প্রত্যন্ত গ্রাম পশরায় নদী ভাঙ্গন কবলিত উদ্বস্তু পরিবারের বসবাস। অবহেলিত ঐ এলাকায় শিক্ষানুরাগী ও সমাজ সেবক এ. কে আজাদ এর প্রতিষ্ঠিত বিদ্যালয় দুটি যেন নিভৃত পল্লিতে সুবিধা বঞ্চিত কিশোর-কিশোরীদের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিচ্ছে। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও আয়োজন করা হয় বার্ষিক ক্রিড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের।

এবারের আয়োজনের মধ্যমণি বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা এ.কে আজাদসহ অতিথিরা আয়োজকদের আশ্বস্ত করেন, বঙ্গবন্ধুর গড়া এই সোনার বাংলায় আর কোন শিক্ষার্থী শিক্ষার অধিকার থেকে বঞ্চিত হবেনা, থাকবেনা বেকারত্ব, সৃষ্টি হবে নতুন কর্ম সংস্থানের সুযোগ।

জাতীয় পতাকা ও ক্রীড়া পতাকা উত্তোলন, জাতীয় সংগীত ও শন্তির প্রতীক পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি বিশিষ্ট শিল্পপতি ও শিক্ষানুরগী এ.কে আজাদ।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফরিদপুরে্র জেলা প্রশাসক অতুল সরকার।

এম এ আজিজ হাই স্কুলের ব্যাবস্থাপনা কমিটির সভাপতি শহিদুল ইসলাম নিরুঅ নুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন।

অনুষ্ঠানের বিভিন্ন পর্বে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নেক্সট কালেকশন্স লিমিটেডের এম ডি বেলাল হোসেন, হা-মীম গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. মোতালেব হোসেন, ফরিদপুর সদর উপজেলার চেয়ারম্যান আবদুর রাজ্জাক মোল্লা, ডা. আবুল হাসেম, প্রফেসর এম এ সামাদ, এ্যাড. শামসুল হক ভোলা মস্টার, সমাজ সেবক চিত্তরঞ্জন ঘোষ, এম এ আজিজ হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক এনামুল হক সাইফুদ্দিন, এম এ আজিজ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শাহনাজ ইসমত জাহান, বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি দিলিপ কুমার বিশ্বাস, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সাদিকুজ্জামান মিলন পাল, স্থানীয় ডিক্রীরচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান মিন্টু, নর্থ চ্যানেল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মেস্তাকুজ্জামান, বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা একেকের নির্বাহী পরিচালক এমএ জলিল প্রমুখ।

পরে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন অতিথিরা।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন