ঢাকা ১২:১৮ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় ত্রাণের চাল চুরির দায়ে এক ইউপি সদস্যের সহযোগীকে সাজা দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত সময় ১০:০৩:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল ২০২০
  • / 12

ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার চান্দ্রা ইউনিয়নের গোয়ালবেড়া গ্রামে হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দকৃত খাদ্য ত্রাণের চাল বিক্রির সময়৬ বস্তা চালসহ ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যের সহযোগী আলমগীর (২৫) নামে এক যুবককে আটক করেছে গ্রামবাসী।

পরে ইউপি সদস্যের সহযোগীকে তিন মাসের সাজা দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আজ শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে এই ঘটনাটি ঘটেছে চান্দ্রা ইউনিয়নের ৯ নাম্বার ওয়ার্ড এলাকায়। পরে খবর পেয়ে ভাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ সমন্বয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ত্রাণের চালসহ তাদের কাছে হস্তান্তর করে গ্রামবাসী। পরে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে খাদ্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৩৯ ধারায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে ৩ মাসের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাকিবুল ইসলাম খান। পরে আসামিকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ভাঙ্গা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আলামিন মিয়া, ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আকরামুজ্জামান রাজা, এসআই আজাদ, রেজওয়ান আহমেদ, চান্দ্রা ইউপি চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন খালাসী।

এদিকে চাল চুরির মূল অভিযুক্ত ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার মেম্বর মিজানুর রহমান লিটু এ ঘটনার পর এলাকা থেকে গা ঢাকা দিয়েছে। পলাতক মেম্বরের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ভ্রাম্যমাণ আদালতের পরিচালক ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রকিবুর রহমান খান।

উল্লেখ্য, গোয়ালবেড়া গ্রামবাসী সন্দেহ হওয়ায় প্রাথমিকভাবে দুজনকে আটক করার পরে প্রশাসনের কাছে দুজনকে হস্তান্তর করে। কিন্তু জনৈক ব্যক্তি চাল চুরির ঘটনার সাথে জড়িত না থাকার প্রমাণ পাওয়ায় তাকে বেখসুর খালাস দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

ফরিদপুরের ভাঙ্গায় ত্রাণের চাল চুরির দায়ে এক ইউপি সদস্যের সহযোগীকে সাজা দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত

প্রকাশিত সময় ১০:০৩:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল ২০২০

ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার চান্দ্রা ইউনিয়নের গোয়ালবেড়া গ্রামে হতদরিদ্রদের জন্য বরাদ্দকৃত খাদ্য ত্রাণের চাল বিক্রির সময়৬ বস্তা চালসহ ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যের সহযোগী আলমগীর (২৫) নামে এক যুবককে আটক করেছে গ্রামবাসী।

পরে ইউপি সদস্যের সহযোগীকে তিন মাসের সাজা দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

আজ শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে এই ঘটনাটি ঘটেছে চান্দ্রা ইউনিয়নের ৯ নাম্বার ওয়ার্ড এলাকায়। পরে খবর পেয়ে ভাঙ্গা উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ সমন্বয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে ত্রাণের চালসহ তাদের কাছে হস্তান্তর করে গ্রামবাসী। পরে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে খাদ্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৩৯ ধারায় অভিযুক্ত ব্যক্তিকে ৩ মাসের সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাকিবুল ইসলাম খান। পরে আসামিকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ভাঙ্গা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ আলামিন মিয়া, ভাঙ্গা উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আকরামুজ্জামান রাজা, এসআই আজাদ, রেজওয়ান আহমেদ, চান্দ্রা ইউপি চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন খালাসী।

এদিকে চাল চুরির মূল অভিযুক্ত ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার মেম্বর মিজানুর রহমান লিটু এ ঘটনার পর এলাকা থেকে গা ঢাকা দিয়েছে। পলাতক মেম্বরের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ভ্রাম্যমাণ আদালতের পরিচালক ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রকিবুর রহমান খান।

উল্লেখ্য, গোয়ালবেড়া গ্রামবাসী সন্দেহ হওয়ায় প্রাথমিকভাবে দুজনকে আটক করার পরে প্রশাসনের কাছে দুজনকে হস্তান্তর করে। কিন্তু জনৈক ব্যক্তি চাল চুরির ঘটনার সাথে জড়িত না থাকার প্রমাণ পাওয়ায় তাকে বেখসুর খালাস দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।