ফরিদপুরে বন্ধ ঘরে মিললো দম্পতির জোড়া লাশ

ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ ফরিদপুরে এক ঘরে মিলল স্বামী ও স্ত্রীর লাশ। স্ত্রী মৃত অবস্থায় শয্যায় শোয়া ছিল। অপরদিকে স্বামীকে ঘরের সিলিং ফ্যানে গলায় ওড়না পেচানো ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়। ঘটনাটি ঘটেছে ফরিদপুর শহরের পূর্ব খাবাসপুর মহল্লার লঞ্চঘাট এলাকায়।

গত ১৭ ফেব্রুয়ারী সোমবার রাত ৮ ঘটিকার সময় ফরিদপুর কোতয়ালী থানার পুলিশ ঘরের দরজা ভেঙ্গে লাশ দুটি উদ্ধার করেন।

মৃত স্বামী ও স্ত্রীর নাম রাজীব বিশ্বাস (৩৪) ও স্মৃতি বণিক (২২)। এরা দুজনই গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলার বাটিকামারী এলাকার বাসিন্দা। স্মৃতি বণিক মুকসুদপুরের বাটিকামারী এলাকার খোকন বণিকের মেয়ে। তবে রাজীবের বাবার নাম জানা যায়নি।

এলকাবাসী জানায়, গত দুই বছর আগে ফরিদপুরের লঞ্চঘাট এলাকার মো. বরকাতের একতলা পাকা বাড়িটি ভাড়া নেন তারা। বরকতের বাড়িটি লঞ্চ ঘাট এলাকায় কুমার নদের পূর্ব পাড় সংলগ্ন। রাজীব একটি কলেজে শিক্ষকতা করতেন বলে প্রাথমিক খবরে জানা গেছে।

স্বপ্নার আত্মীয় গোপাল পোদ্দার সাংবাদিকদের জানান, দুই বছর আগে রাজীব ও স্বপ্না নিজেদের পছন্দমত বিয়ে করেন। বিয়ে করার পর তারা ফরিদপুর শহরে এসে বসবাস করা শুরু করেন। এ দুই বছরে তাদের কোন সন্তান হয়নি।

ফরিদপুর কোতয়ালী থানার উপ-পরিদর্শক বেলাল হোসেন জানান, পুলিশ দরজা ভেঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় রাজীবের লাশ এবং শয্যায় পড়ে থাকা অবস্থায় স্বপ্নার লাশ উদ্ধার করে। যে ঘর থেকে লাশ উদ্ধার করা হয় সেটি ভিতর থেকে বন্ধ ছিল। লাশ দুটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে মঙ্গলবার পাঠানো হবে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন