ঢাকা ০৮:৪৩ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

ফরিদা পারভীন ও টুনটুন বাউলের গানের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দুইদিনব্যাপী লালন স্মরণ উৎসব

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত সময় ০৬:৪১:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০
  • / 22

বার্তা সংস্থা পিপঃ পাবনায় লালন কন্যা ফরিদা পারভীন ও টুনটুন বাউলের গানের মধ্যদিয়ে শেষ হলো দুইদনব্যাপী লালন স্মরণ উৎসব।

“এমন সমাজ কবে গো সৃজন হবে যেদিন হিন্দু মসুলমান বৌদ্ধ খ্রিস্টান জাতি গোত্র নাহি রবে” লালনের এই গানের কথার সুরধরে পাবনা লালন স্মৃতি পরিষদের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো লালন স্মরণ উৎসব।

শনিবার সন্ধ্যায় শহরের সরকারি এওয়ার্ড কলেজের স্বাধীনতা চত্বরে প্রদীপ প্রজ্জলনের মধ্যদিয়ে নবম বারেরমত লালন উৎসবের উদ্বোধন হয়।

সমাপনী দিনে উৎসব কমিটির অন্যতম সদস্য হাবিবুর রহমান স্বপনের সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় প্রধান অতিথি ছিলেন পাবনা জেলা প্রশাসক কবীর মাহামুদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল রহিম লাল, জেলা প্ররিষদের প্রধান নির্বাহী কাজী আতিউর রহমান, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ নাসির চৌধুরী, লালন পরিষদের সহসভাপতি কবি গোলাম রব্বানী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

দেশীয় সংস্কৃতি ও লালন সাইজির গানের প্রতি ভালোবাসা থেকে জেলাতে প্রতিবছর লালন উৎসব অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে পাবনাতে। লালন ভক্ত ও সংঙ্গীত প্রিয় মানুষের আগমে উৎসবস্থল কানায় কানায় পূর্ন হয়ে উঠে। দেশীয় বাদ্যযন্ত্র বাঁশিরসুর আর লালান কন্যার ও টুনটুন বাউলের কন্ঠে ভেষে আসে লালনের গান।

মূল অনুষ্ঠানের পূর্বে লালন সংঙ্গীত পরিবেশ করেন পাবনা জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস।

দুইদিনব্যাপী লালান উৎসবে স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ জেলার গুরত্বপূর্ন প্রশাসনিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতি কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ফরিদা পারভীন ও টুনটুন বাউলের গানের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দুইদিনব্যাপী লালন স্মরণ উৎসব

প্রকাশিত সময় ০৬:৪১:০৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০

বার্তা সংস্থা পিপঃ পাবনায় লালন কন্যা ফরিদা পারভীন ও টুনটুন বাউলের গানের মধ্যদিয়ে শেষ হলো দুইদনব্যাপী লালন স্মরণ উৎসব।

“এমন সমাজ কবে গো সৃজন হবে যেদিন হিন্দু মসুলমান বৌদ্ধ খ্রিস্টান জাতি গোত্র নাহি রবে” লালনের এই গানের কথার সুরধরে পাবনা লালন স্মৃতি পরিষদের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো লালন স্মরণ উৎসব।

শনিবার সন্ধ্যায় শহরের সরকারি এওয়ার্ড কলেজের স্বাধীনতা চত্বরে প্রদীপ প্রজ্জলনের মধ্যদিয়ে নবম বারেরমত লালন উৎসবের উদ্বোধন হয়।

সমাপনী দিনে উৎসব কমিটির অন্যতম সদস্য হাবিবুর রহমান স্বপনের সভাপতিত্বে আলোচনাসভায় প্রধান অতিথি ছিলেন পাবনা জেলা প্রশাসক কবীর মাহামুদ, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউল রহিম লাল, জেলা প্ররিষদের প্রধান নির্বাহী কাজী আতিউর রহমান, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ নাসির চৌধুরী, লালন পরিষদের সহসভাপতি কবি গোলাম রব্বানী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

দেশীয় সংস্কৃতি ও লালন সাইজির গানের প্রতি ভালোবাসা থেকে জেলাতে প্রতিবছর লালন উৎসব অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে পাবনাতে। লালন ভক্ত ও সংঙ্গীত প্রিয় মানুষের আগমে উৎসবস্থল কানায় কানায় পূর্ন হয়ে উঠে। দেশীয় বাদ্যযন্ত্র বাঁশিরসুর আর লালান কন্যার ও টুনটুন বাউলের কন্ঠে ভেষে আসে লালনের গান।

মূল অনুষ্ঠানের পূর্বে লালন সংঙ্গীত পরিবেশ করেন পাবনা জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস।

দুইদিনব্যাপী লালান উৎসবে স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ জেলার গুরত্বপূর্ন প্রশাসনিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতি কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।