বাংলাদেশী রসনায় তৃপ্ত হলেন সিঙ্গাপুরের অধিবাসী ও বিদেশী কুটনীতিকগণ

প্রবাস ডেস্কঃ সিঙ্গাপুরে প্রথমবারের মতো আয়োজিত হলো বাংলাদেশ রসনাউৎসব। গত ১১ নভেম্বর ২০১৯ তারিখে সিঙ্গাপুরের মান্দারিনঅরচার্ড হোটেলের ট্রিপল থ্রি রেস্টুরেন্টে উৎসবের উদ্বোধন করেন সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার জনাব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান।

বাংলাদেশ হাইকমিশনের আয়োজনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, কুটনীতিক, সরকারী কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মিলে ৬০ জন-এর অধিকঅতিথি উপস্থিত ছিলেন এবং তাদেরকে বাংলাদেশী খাবার সহযোগে আপ্যায়ন করা হয়।

১১-১৭ নভেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত সপ্তাহব্যাপী চলমান রসনাউৎসব সবারজন্য উন্মুক্ত বিধায় সিঙ্গাপুরের স্থানীয় অধিবাসীগণ ও বাংলাদেশী খাবারের স্বাদ গ্রহণ করছেন এবং বাংলাদেশী সংস্কৃতির সাথে পরিচিত হতে পেরে তাদের সন্তুষ্টির কথা প্রকাশ করেন।

সংক্ষিপ্ত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে হাইকমিশনার বলেন, বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুরের মধ্যে জনগণপর্যায়ে সম্পর্ক বৃদ্ধিরলক্ষ্যে হাইকমিশনের পক্ষ থেকে এই প্রয়াস। ভাষারভিন্নতা থাকলেও খাবারের স্বাদ ও সঙ্গীতের মুর্ছনা হৃদয়ঙ্গম করেভিন্ন দেশের সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচিতিহওয়া সম্ভব।

রসনা উৎসবে বাংলাদেশের প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলের প্রতিথ যশারন্ধন শিল্পী জনাব হাবিবুর রহমান ও তার দু’জন সহযোগী বাংলাদেশী ঐতিহ্যবাহী খাবার প্রস্তুত করবেন। রেস্টুরেন্টের কর্মচারীগণ বাংলাদেশী পোষাকে সজ্জিত হয়ে অতিথিদের খাবার পরিবেশন করছেন।

একজন প্রবাসী বাংলাদেশী তার বাঁশিরসুরের ইন্দ্রজালে অতিথিদের মুগ্ধ করেন। রেস্টুরেন্টের প্রবেশমুখে বাংলাদেশী হস্তশিল্প, কারুপণ্য ও ঐতিহ্যবাহী উপাদানদিয়ে সজ্জিত করা হয়।

রসনা উৎসবে বিমানবাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এবং রেভ সিস্টেম নামীয় বাংলাদেশী প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের বিপণন সামগ্রীর প্রদর্শনী ও প্রচার করছেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিগণ প্রদর্শনীস্থল ঘুরে দেখেন এবং সামগ্রিক আয়োজনের প্রশংসা করেন।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন