ঢাকা ০৯:৫৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

বাংলাদেশে খাদ্যসংকট নেই: ডব্লিউএফপি

ঢাকা ব্যুরো:
  • প্রকাশিত সময় ০৫:৩৮:০২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৯ নভেম্বর ২০২২
  • / 31

সামনের দিনগুলোতে বাংলাদেশে খাদ্যসংকট হবে না বলে জানিয়েছেন ডব্লিউএফপির কান্ট্রি ডিরেক্টর ডমেনিকো স্কালপেলি।


বাংলাদেশে খাদ্যসংকট বা দুর্ভিক্ষের কোনো শঙ্কা নেই বলে জানিয়েছে বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি)। আজ বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) কৃষিমন্ত্রী ডব্লিউএফপির কান্ট্রি ডিরেক্টর ডমেনিকো স্কালপেলির নেতৃত্বে সংস্থার প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক করেনকৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক। বৈঠক শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে এখন আমন ধান কাটার কাজ চলছে। তিনি (ডব্লিউএফপির কান্ট্রি ডিরেক্টর) আমাকে বলেছে যে তাদের কাছে তথ্য রয়েছে, বাংলাদেশে খাদ্য সংকট বা দুর্ভিক্ষের সামান্যতম ঝুঁকি নেই। তবে যেহেতু এটি একটি রাজনৈতিক ইস্যু, তাই এটা নিয়ে তিনি সরাসরি কথা বলবেন না। আমি জানতে চেয়েছিলাম, তাকে রেফার করতে পারবো কি না। তিনি তাতে সম্মতি দিয়েছেন।

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘আমরা বিশ্বব্যাংকসহ বিভিন্ন বহুপাক্ষিক দাতাদের যা বলি, তা হল তারা অনুমান করছে যে বিশ্বে খাদ্য সংকটের আশঙ্কা রয়েছে। কাজেই এটাকে বিবেচনায় নিয়েই কাজ করছে সরকার। কৃষি মন্ত্রণালয়ও কাজ করছে। স্বাধীনতার পর থেকেই আমাদের খাদ্যনিরাপত্তার জন্য ডব্লিউএফপি সহযোগিতা করছে। এ মুহূর্তে ছয় বছর যাবত রোহিঙ্গাদের জন্য যে খাদ্য প্রয়োজন, সেটিও বিশ্ব খাদ্য সংস্থার মাধ্যমেই দেওয়া হয়।’

এই রকম আরও টপিক

বাংলাদেশে খাদ্যসংকট নেই: ডব্লিউএফপি

প্রকাশিত সময় ০৫:৩৮:০২ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৯ নভেম্বর ২০২২

বাংলাদেশে খাদ্যসংকট বা দুর্ভিক্ষের কোনো শঙ্কা নেই বলে জানিয়েছে বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচি (ডব্লিউএফপি)। আজ বৃহস্পতিবার (১৭ নভেম্বর) কৃষিমন্ত্রী ডব্লিউএফপির কান্ট্রি ডিরেক্টর ডমেনিকো স্কালপেলির নেতৃত্বে সংস্থার প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক করেনকৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক। বৈঠক শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

কৃষিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে এখন আমন ধান কাটার কাজ চলছে। তিনি (ডব্লিউএফপির কান্ট্রি ডিরেক্টর) আমাকে বলেছে যে তাদের কাছে তথ্য রয়েছে, বাংলাদেশে খাদ্য সংকট বা দুর্ভিক্ষের সামান্যতম ঝুঁকি নেই। তবে যেহেতু এটি একটি রাজনৈতিক ইস্যু, তাই এটা নিয়ে তিনি সরাসরি কথা বলবেন না। আমি জানতে চেয়েছিলাম, তাকে রেফার করতে পারবো কি না। তিনি তাতে সম্মতি দিয়েছেন।

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘আমরা বিশ্বব্যাংকসহ বিভিন্ন বহুপাক্ষিক দাতাদের যা বলি, তা হল তারা অনুমান করছে যে বিশ্বে খাদ্য সংকটের আশঙ্কা রয়েছে। কাজেই এটাকে বিবেচনায় নিয়েই কাজ করছে সরকার। কৃষি মন্ত্রণালয়ও কাজ করছে। স্বাধীনতার পর থেকেই আমাদের খাদ্যনিরাপত্তার জন্য ডব্লিউএফপি সহযোগিতা করছে। এ মুহূর্তে ছয় বছর যাবত রোহিঙ্গাদের জন্য যে খাদ্য প্রয়োজন, সেটিও বিশ্ব খাদ্য সংস্থার মাধ্যমেই দেওয়া হয়।’