ঢাকা ০৪:৪৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

বিরামপুর কলেজ বাজারে ৩০ টাকা কেজি দরের সরকারি ৯ বস্তা চাল জব্দ

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
  • প্রকাশিত সময় ০১:০৮:৩৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২২
  • / 35

জব্দ করা চাল।


বিরামপুর কলেজ বাজারে ৩০ টাকা কেজি দরে ভোক্তাদের নিকট বিক্রির জন্য আনা সরকারি চাল বেশি দামে ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রি করা ওএমএস’র বড় ৯ বস্তা চাল জব্দ করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার কলেজ বাজারস্থ ওএমএস ডিলার ও উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি আবু হেনা মোস্তফা কামালের ওএমএস দোকান থেকে বস্তা বদল করে বড় আকারের ৭ বস্তা চাল নিয়ে একটি রিক্সাভ্যান যাওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন তা আটক করে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে সংবাদ দেয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমার সরকার, থানার ওসি সুমন কুমার মহন্ত ও উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক গোলাম মওলা ঘটনাস্থলে গিয়ে ভ্যানসহ ৭ বস্তা ওএমএস’র চাল জব্দ করেন।

 এসময় স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে কলেজ বাজারে একটি মুদি দোকান থেকে আরো ২টি বড় বস্তায় রাখা ওএমএস’র চাল জব্দ করেন। মুদি দোকানী আব্দুল গোফফার জানান, তিনি এই চালগুলো ওএমএস ডিলার আবু হেনা মোস্তফা কামালের নিকট থেকে কিনে আনেন। ইতিপূর্বেও তিনি ডিলারের নিকট থেকে চাল কিনে খুচরা বাজারে বেশি দামে বিক্রি করেছেন।

এব্যাপারে ওএমএস ডিলার আবু হেনা মোস্তফা কামাল কোন বক্তব্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমার সরকার জানান, ওএমএস সন্দেহে ৯ বস্তা (৪৩৭ কেজি) চাল জব্দ করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এই রকম আরও টপিক

বিরামপুর কলেজ বাজারে ৩০ টাকা কেজি দরের সরকারি ৯ বস্তা চাল জব্দ

প্রকাশিত সময় ০১:০৮:৩৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২২

বিরামপুর কলেজ বাজারে ৩০ টাকা কেজি দরে ভোক্তাদের নিকট বিক্রির জন্য আনা সরকারি চাল বেশি দামে ব্যবসায়ীদের নিকট বিক্রি করা ওএমএস’র বড় ৯ বস্তা চাল জব্দ করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার কলেজ বাজারস্থ ওএমএস ডিলার ও উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি আবু হেনা মোস্তফা কামালের ওএমএস দোকান থেকে বস্তা বদল করে বড় আকারের ৭ বস্তা চাল নিয়ে একটি রিক্সাভ্যান যাওয়ার সময় স্থানীয় লোকজন তা আটক করে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে সংবাদ দেয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমার সরকার, থানার ওসি সুমন কুমার মহন্ত ও উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক গোলাম মওলা ঘটনাস্থলে গিয়ে ভ্যানসহ ৭ বস্তা ওএমএস’র চাল জব্দ করেন।

 এসময় স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে কলেজ বাজারে একটি মুদি দোকান থেকে আরো ২টি বড় বস্তায় রাখা ওএমএস’র চাল জব্দ করেন। মুদি দোকানী আব্দুল গোফফার জানান, তিনি এই চালগুলো ওএমএস ডিলার আবু হেনা মোস্তফা কামালের নিকট থেকে কিনে আনেন। ইতিপূর্বেও তিনি ডিলারের নিকট থেকে চাল কিনে খুচরা বাজারে বেশি দামে বিক্রি করেছেন।

এব্যাপারে ওএমএস ডিলার আবু হেনা মোস্তফা কামাল কোন বক্তব্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমার সরকার জানান, ওএমএস সন্দেহে ৯ বস্তা (৪৩৭ কেজি) চাল জব্দ করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।