ঢাকা ০১:৩১ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

ভাঙ্গুড়ায় শিক্ষার্থী পেটানোয় শিক্ষক বদলী

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত সময় ০৯:৫৮:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯
  • / 7

চলনবিলাঞ্চল প্রতিনিধি: উপজেলার কাচারীবাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী পেটানো প্রধান শিক্ষক নাসির উদ্দিন বদলী হয়েছেন।

গত ৪ সেপ্টেম্বর বাড়ির কাজ না করায় এবং পড়া বলতে না পারায় ঐ বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী আব্দুল মোমিন ও মরিয়মকে বেত দিয়ে পিটিয়ে যখম করে প্রধান শিক্ষক নাসির উদ্দিন।

এদের মধ্যে আব্দুল মোমিনকে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এই সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস শিক্ষার্থী পেটানোর ঘটনার তদন্ত করে সত্যতা পায়।

পরে ঐ শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস জেলা প্রাধমিক শিক্ষা অফিসের মাধ্যমে বিভাগীয় প্রাথমকি শিক্ষা অফিসে চিঠি পাঠায়।

বৃহস্পতিবার তার বদলী সংক্রান্ত আদেশ উপজেলা শিক্ষা অফিসে আসলে তাকে শাস্তি স্বরুপ উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল খানমরিচ ইউনিয়নের দুধবাড়িয়া সরকারী প্রাথমকি বিদ্যালয়ে বদলী করা হয়।

এর আগে তার পাশ্ববর্তী উপজেলায় প্রশাসনিক বদলীর কথা শোনা যায়। কথিত আছে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে টাকা দিয়ে সে তার প্রসাশনিক বদলী অন্য উপজেলায় হওয়া আটকিয়েছে।

তার এই কাজের সহযোগিতার অভিযোগ রয়েছে উপজেলা সহকারী প্রাথমকি শিক্ষা অফিসার সেলমি রেজার বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে কথা বলার চেষ্টা করা হলে সেলিম রেজা ফোন রিসিভ করেন নাই।

বদলী হওয়া শিক্ষক নাসির উদ্দিন

 

কাচারিবাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশের বাসিন্দা মোঃ রোকন উদ্দিন বলেন, বদ  মেজাজী এই শিক্ষকের কারনেই এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পূর্ণ নষ্ট হয়েছে।

আরও অনেক আগেই তার বদলীর হওয়া উচিৎ ছিল। সব কিছু জেনেও শিক্ষা অফিস এতদিন চুপ ছিল। আশা করছি এখন স্কুলে শিক্ষার পরিবেশ ফিরে আসবে।

ভাঙ্গুড়া উপজেলা প্রাথমকি শিক্ষা অফিসার খ ম জাহাঙ্গীর বলেন, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় তাকে বদলী করা হয়েছে।

শিক্ষার্থীকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন এখন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। অন্য কেউ এমন করলে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ভাঙ্গুড়ায় শিক্ষার্থী পেটানোয় শিক্ষক বদলী

প্রকাশিত সময় ০৯:৫৮:২৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

চলনবিলাঞ্চল প্রতিনিধি: উপজেলার কাচারীবাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী পেটানো প্রধান শিক্ষক নাসির উদ্দিন বদলী হয়েছেন।

গত ৪ সেপ্টেম্বর বাড়ির কাজ না করায় এবং পড়া বলতে না পারায় ঐ বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী আব্দুল মোমিন ও মরিয়মকে বেত দিয়ে পিটিয়ে যখম করে প্রধান শিক্ষক নাসির উদ্দিন।

এদের মধ্যে আব্দুল মোমিনকে ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। এই সংবাদ গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস শিক্ষার্থী পেটানোর ঘটনার তদন্ত করে সত্যতা পায়।

পরে ঐ শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস জেলা প্রাধমিক শিক্ষা অফিসের মাধ্যমে বিভাগীয় প্রাথমকি শিক্ষা অফিসে চিঠি পাঠায়।

বৃহস্পতিবার তার বদলী সংক্রান্ত আদেশ উপজেলা শিক্ষা অফিসে আসলে তাকে শাস্তি স্বরুপ উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল খানমরিচ ইউনিয়নের দুধবাড়িয়া সরকারী প্রাথমকি বিদ্যালয়ে বদলী করা হয়।

এর আগে তার পাশ্ববর্তী উপজেলায় প্রশাসনিক বদলীর কথা শোনা যায়। কথিত আছে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে টাকা দিয়ে সে তার প্রসাশনিক বদলী অন্য উপজেলায় হওয়া আটকিয়েছে।

তার এই কাজের সহযোগিতার অভিযোগ রয়েছে উপজেলা সহকারী প্রাথমকি শিক্ষা অফিসার সেলমি রেজার বিরুদ্ধে। এ বিষয়ে কথা বলার চেষ্টা করা হলে সেলিম রেজা ফোন রিসিভ করেন নাই।

বদলী হওয়া শিক্ষক নাসির উদ্দিন

 

কাচারিবাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশের বাসিন্দা মোঃ রোকন উদ্দিন বলেন, বদ  মেজাজী এই শিক্ষকের কারনেই এই প্রতিষ্ঠানের শিক্ষা ব্যবস্থা সম্পূর্ণ নষ্ট হয়েছে।

আরও অনেক আগেই তার বদলীর হওয়া উচিৎ ছিল। সব কিছু জেনেও শিক্ষা অফিস এতদিন চুপ ছিল। আশা করছি এখন স্কুলে শিক্ষার পরিবেশ ফিরে আসবে।

ভাঙ্গুড়া উপজেলা প্রাথমকি শিক্ষা অফিসার খ ম জাহাঙ্গীর বলেন, তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় তাকে বদলী করা হয়েছে।

শিক্ষার্থীকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন এখন সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। অন্য কেউ এমন করলে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে।