ঢাকা ০৪:৫১ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

ভুট্টা চাষে সফলতার স্বপ্ন বুনছেন বিরামপুরের কৃষকেরা

বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
  • প্রকাশিত সময় ০১:১৩:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২৩
  • / 23

বিরামপুরে বুট্টা চাষ। - স্বতঃকণ্ঠ


অনুকূল অবহাওয়া, কম পরিশ্রমে বেশি ফসল, কম পুঁজি, ঝুঁকিহীন, সেচ ও সার প্রয়োগের সুবিধা থাকায় ভুট্টা চাষে বিরামপুরের কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে।  দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলায় মাঠ জুড়ে ভুট্টা চাষ করেছেন কৃষকরা। কম খরচে বেশি মুনাফা অর্জনের ফলে দিন দিন এর চাহিদা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে।  

বিরামপুর উপজেলা  কৃষি  অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে,চলতি বছরে ১ হাজার ৭ শত ’ ২৫  হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ করা হচ্ছে। এতে উৎপাদনের ক্ষেত্রে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে।

উপজেলার মামুদপুর গ্রামের কৃষক সিরাজুল বলেন,  ভুট্টার উৎপাদন খরচ যেমন কম দামও অনেক বেশি থাকে। এ জন্য আমরা ভুট্টা চাষে এবার ঝুকে পড়েছি। 

উপজেলার বালু পাড়া গ্রামের কৃষক আব্দুল জব্বার বলেন, একই কথা।

তাই এবার ভুট্টা চাষ করছি। আশা করি ফলনও বাম্পার হবে। তবে ন্যায্য দাম পেলে কষ্ট সার্থক হবে।

বিরামপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ নিকছন চন্দ্র পাল জানান, সব ধরনের ফসল উৎপাদনে আমরা কৃষকদের আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করছি। যাতে করে কৃষকরা সহজভাবে কৃষি উপকরণ পায়। বিশেষ করে বীজ, সার ও তেল এর জন্য সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছি। এবার ভুট্টার ফলন বাম্পার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এই রকম আরও টপিক

ভুট্টা চাষে সফলতার স্বপ্ন বুনছেন বিরামপুরের কৃষকেরা

প্রকাশিত সময় ০১:১৩:৫৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৭ জানুয়ারী ২০২৩

অনুকূল অবহাওয়া, কম পরিশ্রমে বেশি ফসল, কম পুঁজি, ঝুঁকিহীন, সেচ ও সার প্রয়োগের সুবিধা থাকায় ভুট্টা চাষে বিরামপুরের কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে।  দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলায় মাঠ জুড়ে ভুট্টা চাষ করেছেন কৃষকরা। কম খরচে বেশি মুনাফা অর্জনের ফলে দিন দিন এর চাহিদা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে।  

বিরামপুর উপজেলা  কৃষি  অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে,চলতি বছরে ১ হাজার ৭ শত ’ ২৫  হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ করা হচ্ছে। এতে উৎপাদনের ক্ষেত্রে লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে।

উপজেলার মামুদপুর গ্রামের কৃষক সিরাজুল বলেন,  ভুট্টার উৎপাদন খরচ যেমন কম দামও অনেক বেশি থাকে। এ জন্য আমরা ভুট্টা চাষে এবার ঝুকে পড়েছি। 

উপজেলার বালু পাড়া গ্রামের কৃষক আব্দুল জব্বার বলেন, একই কথা।

তাই এবার ভুট্টা চাষ করছি। আশা করি ফলনও বাম্পার হবে। তবে ন্যায্য দাম পেলে কষ্ট সার্থক হবে।

বিরামপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ নিকছন চন্দ্র পাল জানান, সব ধরনের ফসল উৎপাদনে আমরা কৃষকদের আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করছি। যাতে করে কৃষকরা সহজভাবে কৃষি উপকরণ পায়। বিশেষ করে বীজ, সার ও তেল এর জন্য সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছি। এবার ভুট্টার ফলন বাম্পার হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।