রাজশাহীর বাঘায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় দোকান সিলগালা

বাঘা (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর বাঘায় সরকারী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় এক পোশাকের দোকান সিলগালা করে দিয়েছে বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

মঙ্গলবার (১৯ মে) সকাল ১০টার দিকে একটি দোকান সিলগালা করে দেয়া হয়।

জানা যায়, করোনাভাইরাসের কারনে দীর্ঘদিন থেকে খাদ্যসামগ্রী বাদে সকল দোকানপাট বন্ধ ছিল। কিন্তু স্থানীয় ব্যবসায়ীদের অনুরোধে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে খাদ্যসামগ্রী দোকানের পাশাপাশি পোশাকে দোকান খোলার অনুমতি দেয়া হয়। সেই দোকান খোলার অনুমিত পেয়ে ব্যবসায়ী ও ক্রেতারা বেপরোয়া হয়ে উঠে। এক পর্যায়ে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পূনরায় দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়। এই নির্দেশ অমান্য করে বাঘা বাজারের বসন অভিযান কাপড় ঘরের মালিক সাইফুল ইসলাম দোকান ঘুলে ব্যবসা করছিল। এ সময় উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা বিশেষ অভিযান পরিচালনা করেন।

এ সময় দোকান মালিক প্রশাসনের উপস্থিত টের পেয়ে দোকান ঘুলে রেখে পালিয়ে যায়। এ সময় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে দোকান সিলগালা করে দেয়া হয়।বিষয়টি নিশ্চিত করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা।

এদিকে করোনা পরিস্থিতির মধ্যে উপজেলায় জমে উঠেছিল ঈদের কেনাকাটা। এটি বন্ধ করতে মঙ্গলবার (১৯ মে) সকাল থেকে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন প্রশাসন। ফলে বন্ধ হয়ে গেছে সব মার্কেট।করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার রোধে আবারও-দোকানপাট বন্ধের সিদ্ধান্ধ হয়।

গত ১০ মে থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দোকানপাট খোলার সিদ্ধান্ত আসে। সেদিন থেকে দোকানপাট খোলা হয়। কিন্তু সামাজিক দূরত্ব না মেনে ব্যবসা করছিলেন দোকানদারা।এরই পরিপেক্ষিতে মঙ্গলবার সকাল থেকে মাঠে নামে প্রশাসনের কর্মকর্তারা। পুলিশ এবং সেনাবাহিনীর সদস্যরাও মাঠে নামেন।

বাঘা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহিন রেজা বলেন, গত কয়েক দিন দোকানপাট খোলার কারণে করোনার সংক্রমণের ঝুঁকি অনেক বেড়ে গিয়েছিল। দোকান খোলার পর সামাজিক দূরত্ব মানা হচ্চে না এবং জনসমাগম ঠেকানো যাচ্ছিল না বলে জনস্বার্থে দোকানপাট বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে কৃষিপণ্য, কাঁচাবাজার, ওষুধ, জরুরি সেবা ও খাবারের দোকান এই নিষেধাজ্ঞার বাইরে থাকবে।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন