ঢাকা ০৪:৩৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২৪ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

রাতের অন্ধকারে লন্ডভন্ড বিলবোর্ড, আ’লীগকেই দুষলেন পাবনা জেলা সভাপতি 

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি:
  • প্রকাশিত সময় ০৩:৪০:২৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২৩
  • / 140

ঈশ্বরদীতে লালের বিলবোর্ড ছিঁড়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা।


নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে জেলাব্যাপী শেখ মুজিবুর রহমান এবং শেখ হাসিনাসহ নিজের ছবি সংবলিত বিলবোর্ড লাগিয়ে ছিলেন পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রেজাউল রহিম লাল। 

অন্য সবখানের বিলবোর্ড ঠিক থাকলেও ঈশ্বরদী উপজেলা ব্যাপী সাটানো বিলবোর্ড গুলো রাতের অন্ধকারে ছিঁড়ে লন্ডভন্ড করেছেন দূর্বৃত্তরা। 

ঘটনাটি মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী দিবাগত রাতের কোন এক সময় করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয়রা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, উপজেলায় সাঁটানো সমস্ত বিলবোর্ডগুলোই ছেঁড়া হয়েছে। তবে বিলবোর্ডের আশপাশের কেউই এ বিষয়ে নির্দিষ্ট করে কিছুই বলেননি।

বিলবোর্ড
ঈশ্বরদীতে লালের বিলবোর্ড ছিঁড়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা।

বিলবোর্ড ছেঁড়া হয়েছে,  কে বা কারা করেছে জানতে চাইলে পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রেজাউল রহিম লাল হাসতে হাসতে  বলেন, ঈশ্বরদীতে আমার বিলবোর্ড সাঁটানোতে অনেকেই ভেবেছেন আমি হয়ত এবার পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার) জাতীয় নির্বাচনের প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করব। যদিও সাঁটানো ওই বিলবোর্ডগুলোতে নির্বাচন করব বা করতে পারি এমন কিছুই লেখা নেই তবুও দলে থেকে যারা অকৃতকার্য প্রমানিত হয়েছেন, যাদের জনপ্রিয়তা তলানিতে পড়েছে, যারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে দ্বিতীয়বার আর টিকিট চাইতে পারার যোগ্যতা হারিয়েছে তারাই আমার এই বিলবোর্ডগুলোকে ঈর্ষা করেছেন। হয়তবা তারাই আমার এই বিলবোর্ডগুলোকে রাতের অন্ধকারে ছিঁড়ে লন্ডভন্ড করেছেন। 

এসময় তিনি আরও বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে পার্টির প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করেছেন হয়ত  এটাই  আমার অপরাধ যার জন্য নিজ দলের ব্যর্থ নেতারা আমার জনপ্রিয়তাকে নষ্ট করার জন্য এই ব্যর্থ আর নোংরা খেলায় মত্ত হয়েছে। 

লাল আরও বলেন, বিলবোর্ড ছেঁড়া নিয়ে আমার কোন অভিযোগ বা অনুযোগ নেই। তবে বঙ্গবন্ধু এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার ছবিসংবলিত বিলবোর্ড যারা ছিঁড়তে পারেন তারা অবশ্যই রাজাকারের প্রেতাত্মা এবং রাজাকারের দোসর। 

নির্বাচনের প্রার্থীতা নিয়ে তিনি বলেন, জননেত্রী যাকে দেবেন আমি তার পক্ষেই নির্বাচন করব তবে তিনি যদি আমাকে দেন আমি অবশ্যই সেটা সাদরে গ্রহণ করব এবং ঈশ্বরদী-আটঘরিয়াকে আওয়ামী লীগের একটি উর্বর দূর্গ হিসেবে গড়ে তোলার সর্বাত্মক চেষ্টা করব ইনশাল্লাহ।

ঈশ্বরদী লালের বিলবোর্ড ছিঁড়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা।

রাতের অন্ধকারে লন্ডভন্ড বিলবোর্ড, আ’লীগকেই দুষলেন পাবনা জেলা সভাপতি 

প্রকাশিত সময় ০৩:৪০:২৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২৩

নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে জেলাব্যাপী শেখ মুজিবুর রহমান এবং শেখ হাসিনাসহ নিজের ছবি সংবলিত বিলবোর্ড লাগিয়ে ছিলেন পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রেজাউল রহিম লাল। 

অন্য সবখানের বিলবোর্ড ঠিক থাকলেও ঈশ্বরদী উপজেলা ব্যাপী সাটানো বিলবোর্ড গুলো রাতের অন্ধকারে ছিঁড়ে লন্ডভন্ড করেছেন দূর্বৃত্তরা। 

ঘটনাটি মঙ্গলবার ১৭ জানুয়ারী দিবাগত রাতের কোন এক সময় করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয়রা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখাগেছে, উপজেলায় সাঁটানো সমস্ত বিলবোর্ডগুলোই ছেঁড়া হয়েছে। তবে বিলবোর্ডের আশপাশের কেউই এ বিষয়ে নির্দিষ্ট করে কিছুই বলেননি।

বিলবোর্ড
ঈশ্বরদীতে লালের বিলবোর্ড ছিঁড়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা।

বিলবোর্ড ছেঁড়া হয়েছে,  কে বা কারা করেছে জানতে চাইলে পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রেজাউল রহিম লাল হাসতে হাসতে  বলেন, ঈশ্বরদীতে আমার বিলবোর্ড সাঁটানোতে অনেকেই ভেবেছেন আমি হয়ত এবার পাবনা-৪ (ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার) জাতীয় নির্বাচনের প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করব। যদিও সাঁটানো ওই বিলবোর্ডগুলোতে নির্বাচন করব বা করতে পারি এমন কিছুই লেখা নেই তবুও দলে থেকে যারা অকৃতকার্য প্রমানিত হয়েছেন, যাদের জনপ্রিয়তা তলানিতে পড়েছে, যারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে দ্বিতীয়বার আর টিকিট চাইতে পারার যোগ্যতা হারিয়েছে তারাই আমার এই বিলবোর্ডগুলোকে ঈর্ষা করেছেন। হয়তবা তারাই আমার এই বিলবোর্ডগুলোকে রাতের অন্ধকারে ছিঁড়ে লন্ডভন্ড করেছেন। 

এসময় তিনি আরও বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে পার্টির প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করেছেন হয়ত  এটাই  আমার অপরাধ যার জন্য নিজ দলের ব্যর্থ নেতারা আমার জনপ্রিয়তাকে নষ্ট করার জন্য এই ব্যর্থ আর নোংরা খেলায় মত্ত হয়েছে। 

লাল আরও বলেন, বিলবোর্ড ছেঁড়া নিয়ে আমার কোন অভিযোগ বা অনুযোগ নেই। তবে বঙ্গবন্ধু এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার ছবিসংবলিত বিলবোর্ড যারা ছিঁড়তে পারেন তারা অবশ্যই রাজাকারের প্রেতাত্মা এবং রাজাকারের দোসর। 

নির্বাচনের প্রার্থীতা নিয়ে তিনি বলেন, জননেত্রী যাকে দেবেন আমি তার পক্ষেই নির্বাচন করব তবে তিনি যদি আমাকে দেন আমি অবশ্যই সেটা সাদরে গ্রহণ করব এবং ঈশ্বরদী-আটঘরিয়াকে আওয়ামী লীগের একটি উর্বর দূর্গ হিসেবে গড়ে তোলার সর্বাত্মক চেষ্টা করব ইনশাল্লাহ।

ঈশ্বরদী লালের বিলবোর্ড ছিঁড়ে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা।