লকডাউন আর বৃষ্টিতে অস্থির পাবনার চাটমোহরের জনজীবন

চাটমোহর (পাবনা) প্রতিনিধিঃ করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে দুই সপ্তাহের কঠোর বিধিনিষেধের দ্বিতীয় দিন শনিবার দোকানপাট ও গণপরিবহণ বন্ধ থাকলেও বৃষ্টির কারণে চাটমোহরের জনজীবন কিছুটা স্থবির হয়ে পড়ে।

তবে মানুষের মধ্যে নানা অজুহাতে বাইরে বের হওয়ার প্রবনতা লক্ষ্য করা গেছে। অসংখ্য মোটরসাইকেল আর অটোভ্যান ছিল রাস্তায়। চাটমোহর পৌর শহরের বাসস্ট্যান্ড,জারদিস মোড়.ভাদরা বাইপাস,থানা মোড়সহ রাস্তার বিভিন্ন স্থানে পুলিশের জেরার মুখে পড়েছে মানুষ।

এদিকে প্রশাসনের কঠোর নজরদারিতে লকডাউন বাস্তবায়নে শনিবার মাঠে নামে পুলিশ। সকালে সহকারী পুলিশ সুপার (চাটমোহর সার্কেল) সজীব শাহরীন ও চাটমোহর থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে স্থানীয় বাসস্ট্যান্ড,জারদিস মোড়.ভাদরা বাইপাসে পুলিশের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো।

সুনির্দিষ্ট কোন কারণ দেখাতে না পারলে পুলিশ মোটরসাইকেল আটক করে। রোগিবাহী কিছু সিএনজি ও অটোবোরাক ছাড় পেয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন সড়কে চলেছে ব্যাটারী চালিত অটোভ্যান।

প্রতিটি অটোভ্যানেই ৪ থেকে ৬ জন যাত্রী পরিবহণ করা হয়েছে। মানা হয়নি কোন স্বাস্থ্যবিধি। অনেকের মুখেই মাস্ক ছিলনা। কোথাও কোথাও চায়ের দোকান,কাপড়ের দোকানসহ অন্যান্য দোকানে সামান্য সাটার খোলা রেখে দোকানীকে বাইরে অবস্থান করতে দেখা গেছে।

ক্রেতা আসলেই ভেতরে নেওয়া হচ্ছে। চাটমোহর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.সৈকত ইসলাম সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্ত হয়ে হোম কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন। সহকারী কমিশনার (ভূমি) শারমিন ইসলাম মাঠে থেকে বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে কাজ করছেন।

সহকারী পুলিশ সুপার সজীব শাহরিন জানান,পুলিশের কড়া নজরদারি চলছে। সরকারের ঘোষনা অনুযায়ী সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। অপ্রয়োজনে বাইরে বের হলে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আরও পরুনঃ পাবনার সাঁথিয়ায় ছোট ভাইয়ের লাঠির আঘাতে গুরুতর আহত বড় ভাই

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন