সাঁথিয়ায় একটি পরিবার লকডাউন করে কয়েক জনের নমুনা সংগ্রহ

সাঁথিয়া (পাবনা) প্রতিনিধিঃ পাবনার সাঁথিয়ার ক্ষেতুপাড়া ইউনিয়নের এক পরিবারকে লকডাউন করেছে উপজেলা প্রশাসন। কয়েক জনের করোনা ভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ করছেন চিকিৎসক। প্রশাসনিক ব্যাপক নিরাপত্তা জোরদার।

জানা যায়, উপজেলার রসুলপুর গ্রামের জনৈক ব্যক্তি নারায়নগঞ্জ পোশাক শ্রমিকের কাজ করতেন। তিনি গত সোমবার বিকালে নিজ বাড়ীতে আসলে স্থানীয়রা উপজেলা প্রশাসনকে জানালে ওই দিন রাতেই থানা পুলিশের সহায়তায় ওই বাড়ী লক ডাউন করে উপজেলা প্রশাসন। এলাকার নিরাপত্তায় বাড়ীটিতে গ্রাম্য পুলিশ বসিয়ে পাহাড়ায় রাখা হয়েছে। এ ছাড়াও উপজেলার পাটগাড়ী, সেলন্দা, নারিন্দা গ্রামের কয়েক জন ঢাকা নারায়নগঞ্জ থেকে বাড়িতে আসায়, তাদের হোমকোয়ারেন্টে রেখে নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার থানা পুলিশের সহযোগিতায় করোনার ঝুকি নিয়ন্ত্রনে কাজ করে যাচ্ছেন। উপজেলার নি¤œ আয়ের মানুষের ঘরে ঘরে খাবার পৌছাতে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। নিম্ন আয়ের মানুষরা হট লাইনে ফোন করলেই খাবার পাচ্ছে।

এ বিষয়ে ক্ষেতুপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মুনসুর আলম পিনচু বলেন, এলাকাবাসীর তথ্যে থানা পুলিশের সহযোগিতায় ওই পরিবারকে লকডাইনের আওতায় আনা হয়েছে। এলাকার নিরাপত্তার স্বার্থে গ্রাম পুলিশের পাহাড়া বসনো হয়েছে। ওই পরিবারকে খাবারসহ প্রয়োজনীয় সহযোগিতা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে দেয়া হচ্ছে।

সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান জানান, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে এলাকার নিরাপত্তার স্বার্থে গ্রামে বাহির হতে কেউ আসার খবর পেলেই পুলিশ ওই পরিবারকে লকডাউনের ব্যবস্থা নেয়া হয়।

সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস.এম. জামাল আহমেদ বলেন, যেহেতু নারায়নগঞ্জ ও ঢাকায় করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগী বেশী সেহতু ওই এলাকা হতে যেই আসবে আমরা তাকে গভীর পর্যাবেক্ষনে রাখছি। রসুলপুর, পাটগাড়ী, সেলন্দা, নারিন্দাসহ কয়েক গ্রামের সন্দেহ ভাজনদের হোমকোয়ারেন্টে রেখে ডাক্তার পাঠিয়ে নমুনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। সবাইকে সরকারী বিধিবিধান মেনে চলার বিশেষ তাগিদ দেয়া হচ্ছে।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন