হরনীর বয়ারচর থেকে ৫টি বন্ধুক ও অস্ত্র তৈরীর সরঞ্জামসহ ২ জনকে আটক করেছে র‌্যাব

মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন, নোয়াখালীঃ গভীর রাতে হরনী ইউনিয়ন বয়ারচর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করেন র‍্যাব ১১।

উক্ত অভিযানে বাবলু (৩২) ও আনোয়ার হোসেন (৫৬) নামের দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। এসময় তাদের কাছ থেকে তিনটি এক নলা বন্দুক, দু’টি এলজি, একটি বন্দুকের গুলি ও অস্ত্র তৈরির বিপুল পরিমান সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

রবিবার ১৫ মার্চ ভোর থেকে সকাল পর্যন্ত র‌্যাব-১১ এর স্পেশাল কোম্পানির কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জসিম উদ্দীন চৌধুরী পিপিএম এর নেতৃত্বে এ অভিযান চালানো হয়।

গ্রেপ্তারকৃত বাবুল ও আনোয়ার হোসেন হাতিয়ার রয়ারচরের বাসিন্দা।

র‌্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১১ সিপিএসসি নারায়ণগঞ্জ ও সিপিসি-৩ লক্ষ্মীপুর হয়ে হাতিয়া উপজেলার বয়ারচরে অভিযান চালায়। এসময় পাঁচটি আগ্নেয়াস্ত্রসহ বাবুল ও আনোয়ারকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পরে তাদের দেওয়া তথ্যমতে লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি বাজারের রায়হান ওয়ার্কশপে অভিযান চালানো হয়। ওয়ার্কশপের একটি কক্ষ তারা অস্ত্র তৈরির কারখানা হিসেবে ব্যবহার করে। ওই কক্ষ থেকে একটি একনলা বন্দুকের গুলিসহ বিপুল পরিমাণে অস্ত্র তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে।

র‌্যাব-১১ এর স্পেশাল কোম্পানির কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জসিম উদ্দীন চৌধুরী পিপিএম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, রামগতি বাজারে রায়হানের ওয়ার্কশপের আড়ালে অস্ত্র তৈরি করা হয়। ওই অস্ত্রগুলো চরের বিভিন্ন সন্ত্রাসী বাহিনীর কাছে বিক্রি করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করে হাতিয়া থানায় হস্তান্তর করা হবে।

র‍্যাব বলেন সাধারণ জনগোষ্ঠী নিরাপদ জীবন যাপনের জন্য এই ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন