ঢাকা ০৮:৩৭ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

৩ জন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত সময় ০৪:০১:০৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২০
  • / 3

নিউজ ডেস্কঃ পাবনায় র‍্যাব-১২ এর একটি দল অভিযান চালিয়ে অবৈধ নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য গাঁজা ও প্রাইভেটকারসহ ৩ জন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলো, কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ি থানার নাওড়াঙ্গা বালারহাট পোষ্ট অঞ্চলের কুরুসা দেরুসা চওরাবাড়ী গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন তোফা (৫২) ও পশ্চিম ফুলমতি গ্রামের মৃত আব্দুল জব্বারের ছেলে মোঃ আব্দুর রশিদ (৩০) এবং লালমনিরহাট জেলার সদর থানার হাড়িভাঙ্গা এয়ারপোর্ট কাষ্টম কলোনীর আব্দুর রহমান নবাবের ছেলে মোঃ জাহাঙ্গীর আলম তমাল (২৫)।

র‌্যাব-১২, সিপিসি-২ পাবনা এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার মোঃ আমিনুল কবীর তরফদার জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদক ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে মাদক পরিবহন করছে। উক্ত সংবাদের সত্যতা যাচাই ও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে অত্র কোম্পানীর একটি আভিযানিক দল বুধবার ২২ জানুয়ারি রাত ১০ টার সময় পাবনা জেলার আতাইকুলা থানাধীন আতাইকুলা বাজারে চেক পোষ্ট স্থাপন করি।

চেকপোষ্ট করাকালে রাত ১০ টা ২৫ মিনিটের সময়ঢাকা মেট্রো-গ ৬৩৩৩ নাম্বারের একটি প্রইভেটকার গতি রোধ করতে চাইলে গতিরোধ করার জন্য সিগন্যাল দিই। আসামীরা র‌্যাবের সংকেত অমান্য করে দ্রুত গতিতে পালানোর চেষ্টা করে। এমতাবস্থায় র‌্যাবের একটি চৌকশ আভিযানিক দল তাদের ধাওয়া করলে সামান্য দুরে যাওয়ার পরেই প্রাইভেটকারটি আতাইকুলা বাজারেই ধরতে সক্ষম হয়।

এসময় পিকআপ ভ্যানটি তল্লাশি করে অবৈধ নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য ৬৩ (তেষট্টি) কেজি গাঁজা ও প্রাইভেটকার উদ্ধার করা হয়।

ধৃত আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, আসামী দীর্ঘদিন যাবত অবৈধ নেশাজাতীয় মাদকদ্রব্য গাঁজা নিজের হেফাজতে রেখে নিজ এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিল। উক্ত আসামীগন দেশের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী।

জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করে বলে, বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা শহরে পরিবহনের মাধ্যমে তারা বিপুল পরিমাণ অবৈধ মাদকদ্রব্য (গাঁজা) ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিল ।

এ সংক্রান্তে ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে পাবনা জেলার আতাইকুলা থানায় এজাহার দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

৩ জন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

প্রকাশিত সময় ০৪:০১:০৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২০

নিউজ ডেস্কঃ পাবনায় র‍্যাব-১২ এর একটি দল অভিযান চালিয়ে অবৈধ নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য গাঁজা ও প্রাইভেটকারসহ ৩ জন শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলো, কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ি থানার নাওড়াঙ্গা বালারহাট পোষ্ট অঞ্চলের কুরুসা দেরুসা চওরাবাড়ী গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন তোফা (৫২) ও পশ্চিম ফুলমতি গ্রামের মৃত আব্দুল জব্বারের ছেলে মোঃ আব্দুর রশিদ (৩০) এবং লালমনিরহাট জেলার সদর থানার হাড়িভাঙ্গা এয়ারপোর্ট কাষ্টম কলোনীর আব্দুর রহমান নবাবের ছেলে মোঃ জাহাঙ্গীর আলম তমাল (২৫)।

র‌্যাব-১২, সিপিসি-২ পাবনা এর ভারপ্রাপ্ত কোম্পানী কমান্ডার মোঃ আমিনুল কবীর তরফদার জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদক ক্রয়-বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে মাদক পরিবহন করছে। উক্ত সংবাদের সত্যতা যাচাই ও আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে অত্র কোম্পানীর একটি আভিযানিক দল বুধবার ২২ জানুয়ারি রাত ১০ টার সময় পাবনা জেলার আতাইকুলা থানাধীন আতাইকুলা বাজারে চেক পোষ্ট স্থাপন করি।

চেকপোষ্ট করাকালে রাত ১০ টা ২৫ মিনিটের সময়ঢাকা মেট্রো-গ ৬৩৩৩ নাম্বারের একটি প্রইভেটকার গতি রোধ করতে চাইলে গতিরোধ করার জন্য সিগন্যাল দিই। আসামীরা র‌্যাবের সংকেত অমান্য করে দ্রুত গতিতে পালানোর চেষ্টা করে। এমতাবস্থায় র‌্যাবের একটি চৌকশ আভিযানিক দল তাদের ধাওয়া করলে সামান্য দুরে যাওয়ার পরেই প্রাইভেটকারটি আতাইকুলা বাজারেই ধরতে সক্ষম হয়।

এসময় পিকআপ ভ্যানটি তল্লাশি করে অবৈধ নেশা জাতীয় মাদকদ্রব্য ৬৩ (তেষট্টি) কেজি গাঁজা ও প্রাইভেটকার উদ্ধার করা হয়।

ধৃত আসামীদেরকে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, আসামী দীর্ঘদিন যাবত অবৈধ নেশাজাতীয় মাদকদ্রব্য গাঁজা নিজের হেফাজতে রেখে নিজ এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিল। উক্ত আসামীগন দেশের চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী।

জিজ্ঞাসাবাদে তারা স্বীকার করে বলে, বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা শহরে পরিবহনের মাধ্যমে তারা বিপুল পরিমাণ অবৈধ মাদকদ্রব্য (গাঁজা) ক্রয়-বিক্রয় করে আসছিল ।

এ সংক্রান্তে ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে পাবনা জেলার আতাইকুলা থানায় এজাহার দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।