ঢাকা ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

সাঁথিয়ার কাশিনাথপুর হাট-বাজারের শৌচাগারের বেহাল অবস্থা

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত সময় ০৮:৫৭:৪৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮
  • / 6

সাঁথিয়া(পাবনা)প্রতিনিধিঃ পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার কাশিনাথপুর হাট-বাজারের শৌচাগারের বেহাল অবস্থায় চরম দুভোগে পড়েছে ক্রেতা-বিক্রেতা ও দোকানদারসহ জনসাধারন।

লিখিত অভিযোগে জানাযায়, কাশিনাথপুর হাট-বাজারে ১টি মাত্র শৌচাগার। এ হাট-বাজারে প্রায় ১৪/১৫টি মার্কেট রয়েছে। দু’ একটি মার্কেট ব্যতিত এ সকল মার্কেটে কোন শৌচাগার না থাকায় ঐ একটি শৌচাগারই এক মাত্র ভরসা দোকানদার ও ক্রেতা-বিক্রেতাদের।

শৌচাগারটি পরিস্কার না থাকায় তাও অধিকাংশ সময় ব্যবহারের অনুপযোগি হয়ে থাকে। ফলে দোকানদার ও ক্রেতা-বিক্রেতারা যত্রতত্র প্রসাব-পায়খানা করে পরিবেশের ভয়ানক সমস্যার সৃষ্টি করছে।

বাজারের কয়েকজন দোকানদার জানান, এত বড় হাট-বাজারে একটি মাত্র শৌচাগার। প্রসাব-পায়খানা করতে গেলে লাইন ধরে থাকতে হয়। যাদের পেট খারাব তারা অপেক্ষা না করেই যত্রতত্রই পায়খানা করে পরিবেশ নষ্ট করছে।

শৌচাগারটির উপরের টিনের চাল ছিদ্র হয়ে সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি ভিতরে পড়ে। এব্যাপারে হাট-বাজারের ইজাদারদের বলে কোন ফল হয়নি। শৌচাগারটি পরিস্কারসহ মোরামত করার কথা স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মীর মনজুর এলাহীকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন,

দ্রুত সময়ের মধ্যেই ৭/৮টি বিশিষ্ট শৌচাগার করা হবে। কিন্তু কাজের কাজ কোনটাই হচ্ছে না। কাশিনাথপুর হাট-বাজারের শৌচাগারটি দ্রুত সময়ের মধ্যে মেরামতসহ শৌচাগারের সংখ্যা বৃদ্ধির জন্য

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট আবেদন করেছেন বলে দোকানদারগণ জানান। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহাঙ্গীর আলম জানান, অভিযোগ আসলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাঁথিয়ার কাশিনাথপুর হাট-বাজারের শৌচাগারের বেহাল অবস্থা

প্রকাশিত সময় ০৮:৫৭:৪৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সাঁথিয়া(পাবনা)প্রতিনিধিঃ পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার কাশিনাথপুর হাট-বাজারের শৌচাগারের বেহাল অবস্থায় চরম দুভোগে পড়েছে ক্রেতা-বিক্রেতা ও দোকানদারসহ জনসাধারন।

লিখিত অভিযোগে জানাযায়, কাশিনাথপুর হাট-বাজারে ১টি মাত্র শৌচাগার। এ হাট-বাজারে প্রায় ১৪/১৫টি মার্কেট রয়েছে। দু’ একটি মার্কেট ব্যতিত এ সকল মার্কেটে কোন শৌচাগার না থাকায় ঐ একটি শৌচাগারই এক মাত্র ভরসা দোকানদার ও ক্রেতা-বিক্রেতাদের।

শৌচাগারটি পরিস্কার না থাকায় তাও অধিকাংশ সময় ব্যবহারের অনুপযোগি হয়ে থাকে। ফলে দোকানদার ও ক্রেতা-বিক্রেতারা যত্রতত্র প্রসাব-পায়খানা করে পরিবেশের ভয়ানক সমস্যার সৃষ্টি করছে।

বাজারের কয়েকজন দোকানদার জানান, এত বড় হাট-বাজারে একটি মাত্র শৌচাগার। প্রসাব-পায়খানা করতে গেলে লাইন ধরে থাকতে হয়। যাদের পেট খারাব তারা অপেক্ষা না করেই যত্রতত্রই পায়খানা করে পরিবেশ নষ্ট করছে।

শৌচাগারটির উপরের টিনের চাল ছিদ্র হয়ে সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি ভিতরে পড়ে। এব্যাপারে হাট-বাজারের ইজাদারদের বলে কোন ফল হয়নি। শৌচাগারটি পরিস্কারসহ মোরামত করার কথা স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মীর মনজুর এলাহীকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন,

দ্রুত সময়ের মধ্যেই ৭/৮টি বিশিষ্ট শৌচাগার করা হবে। কিন্তু কাজের কাজ কোনটাই হচ্ছে না। কাশিনাথপুর হাট-বাজারের শৌচাগারটি দ্রুত সময়ের মধ্যে মেরামতসহ শৌচাগারের সংখ্যা বৃদ্ধির জন্য

উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট আবেদন করেছেন বলে দোকানদারগণ জানান। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহাঙ্গীর আলম জানান, অভিযোগ আসলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।