‘সাইকেল আমার পড়াশুনার গতি বাড়িয়ে দিবে’ : পাবনায় ৪৬ দু:স্থ শিক্ষার্থী ও ব্যাক্তির মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ

পাবনা প্রতিনিধি: পাবনার চাটমোহর উপজেলার মধ্যেশালিখা গ্রামের মো. আব্দুর রফিকের ছেলে চাটমোহর রাজা চন্দ্রনাথ উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর ছাত্র মো: নুরই মুতাদিন (১৬) প্রতিদিন ১১ কিলোমিটার পায়ে হেটে বাড়ী থেকে তার স্কুলে যায়।

দীর্ঘদিনের স্বপ্ন ছিল একটি সাইকেলের। কিন্তু বাবা দিনমজুর এবং দরিদ্র। ৫ ভাই ৩ বোনের সংসারে সংসার চালানই কষ্টের। তার উপর আবার বাই সাইকেল। কিন্তু নরই মুতাদিনের সেই স্বপ্ন পুরণে এগিয়ে এসেছে শামসুল হক-মালিহা খাতুন-নার্গিস ট্রাষ্ট।

গতকাল শনিবার নুরই মুতাদিনকে উপহার হিসেবে প্রদান করা হয়েছে একটি নতুন ফনিক্স বাই সাইকেল। এই বাইসাইকেল পাওয়ার পর মো: নুরই মুতাদিন বার্তা সংস্থা পিপ‘কে বলেন, “এই সাইকেল আমার জীবন পাল্টিয়ে দেবে, বাড়িয়ে দেবে আমার পড়াশুনার গতি”।

বাই সাইকেল পেয়ে চাটমোহরের বড়সিংহা গ্রামের প্রতিবন্ধি সাদিয়া খাতুন (১২), পাবনা সদরের টিকুরি গ্রামের রুহুল আমিন সহ ৪৪ জন অসহায় দু:স্থ ও প্রতিবন্ধি সবাই খুব খুশি। তাদের আর পায়ে হেটে কষ্ট করে চলতে হবেনা।

তবে পাবনার জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন সাইকেল প্রাপ্তদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আশা করি তোমরা এই সাইকেলের মর্যাদা রাখবে। ভাল কাজে ব্যবহার করবে, ফিল্ডিং মারবে না।

গতকাল শনিবার দুপুরে শামসুল হক- মালিহা খাতুন-নার্গিস ট্রাষ্টের উদ্যোগে পাবনার ৪৬ জন দু:স্থ শিক্ষার্থী ও ব্যাক্তির মাঝে বাইসাইকেল বিতরণ করা হয়। পাবনা সার্কিট হাউজ মিলনায়তনে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে সাবেক রাষ্ট্রদুত ও সচিব হুমায়ন এ কামাল, সাবেক আইজিপি ও সচিব মুহাম্মদ নুরুল হুদা এবং জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন, পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির পিপিএম প্রমূখ বক্তব্য দেন।

বক্তারা মানব কল্যাণে কাজ করে যাওয়ার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ জানান। অনুষ্ঠানে সুবিধা বঞ্চিত শিক্ষার্থী ও ব্যাক্তিদের হাতে সাইকেল ও চাবি তুলে দেন অতিথিবৃন্দ।

পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস, পাবনা সংবাদপত্র পরিষদ সভাপতি আব্দুল মতীন খান, সমকাল এবং এনটিভির স্টাফ রির্পোটার, পাবনা রিপোটার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী বাবলা এ সময় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন