ঢাকা ০৮:২৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

মন্ত্রণালয় কর্তৃক পাবনার ৯ ভূয়া মুক্তিযোদ্ধার গেজেট ও সনদ বাতিল

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত সময় ০৫:৫৩:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
  • / 8

মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক ৯ ভূয়া মুক্তিযোদ্ধার গেজেট ও সনদ বাতিলের নির্দেশ প্রদান করেছে। ১২ ডিসেম্বও ২০১৮ খ্রি. এক প্রজ্ঞাপন যাহার স্মারক  নং-৪৮.০০.০০০০.০০৬.৯৯.০০৫.১৮.৩২৯  এবং ১৩ ডিসেম্বও ২০১৮ খ্রি. যাহার স্মারক নং-৪৮.০০.০০০০.০০৪.৩৭.১২৬.১৬.৪৭২৬ মাধ্যমে এ নির্দেশনা প্রদান করেন মন্ত্রণালয়।

এদের মধ্যে ৪(চার) জন পাবনা সদর উপজেলার- মোঃ হারেজ আলী, পিতা-মরহুম চাঁদ আলী, গ্রাম- মজিদপুর, ইউনিয়ন- মালিগাছা। মো: আব্দুল কাদের, পিতা-মরহুম কফিল উদ্দিন, গ্রাম-দক্ষিণ রাঘবপুর, পৌরসভা।

মোঃ আব্দুর রহমান, পিতা-মরহুম জয়েন উদ্দিন, গ্রাম- নাজিরপুর, ইউনিয়ন- হেমায়েতপুর। মোঃ আবুল হোসেন, পিতা-মরহুম জসিম উদ্দিন, গ্রাম-শালগাড়ীয়া, পৌরসভা।

তারা মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় যুদ্ধে অংশগ্রহণ না করে দীর্ঘ ৯ মাস নিয়মিত স্ব স্ব কর্মস্থলে উপস্থিত হয়ে অফিস সহ নিজ দায়িত্ব পালন করেন এবং নিয়মিত বেতন উত্তোলন করেন।

অপর ৫ জন মোঃ আব্দুল বাতেন, পিতা-মৃত এলাহী বক্স, নাজিরপুর, ইউনিয়ন-হেমায়েতপুর। মোঃ আশরাফ উদ্দিন আহম্মেদ, পিতা-আহসান আলী মালিথা, গ্রাম- চর গাফুরিয়াবাদ , ইউনিয়ন-হেমায়েতপুর। মোঃ আতাউর রহমান, পিতা-মৃত এরফান মন্ডল, গ্রাম-দ্বীপচর, ইউনিয়ন-দোগাছি। মোঃ আবুল কাশেম বিশ্বাস, পিতা-মৃত আমেজ উদ্দিন বিশ্বাস, গ্রাম- আটুয়া, পৌরসভা। মোঃ তরিকুল আলম নিলু, পিতা-আ: হামিদ খান, গ্রাম-নাজিরপুর, ইউনিয়ন-হেমায়েতপুর।

তারা মহান মুক্তিযুদ্ধের কোন পর্যায়ে অংশগ্রহণ না করেই যুদ্ধাহত হিসাবে ভাতা গ্রহণ করছেন মর্মে অভিযোগ প্রমানিত হওয়ার প্রেক্ষিতে মাননীয় মন্ত্রী এ নির্দেশনা প্রদান করেন।

তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশ প্রদান করেন।

এহেন সিদ্ধান্তের জন্য পাবনা সদর উপজেলার সকল মুক্তিযোদ্ধাগণ মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং সরকারের সঠিক যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে সকল ভূয়া মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা হতে বাদ দিয়ে নির্ভূল তালিকা করার প্রত্যয়কে সাধুবাদ জানান।

মন্ত্রণালয় কর্তৃক পাবনার ৯ ভূয়া মুক্তিযোদ্ধার গেজেট ও সনদ বাতিল

প্রকাশিত সময় ০৫:৫৩:২৩ অপরাহ্ন, রবিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক ৯ ভূয়া মুক্তিযোদ্ধার গেজেট ও সনদ বাতিলের নির্দেশ প্রদান করেছে। ১২ ডিসেম্বও ২০১৮ খ্রি. এক প্রজ্ঞাপন যাহার স্মারক  নং-৪৮.০০.০০০০.০০৬.৯৯.০০৫.১৮.৩২৯  এবং ১৩ ডিসেম্বও ২০১৮ খ্রি. যাহার স্মারক নং-৪৮.০০.০০০০.০০৪.৩৭.১২৬.১৬.৪৭২৬ মাধ্যমে এ নির্দেশনা প্রদান করেন মন্ত্রণালয়।

এদের মধ্যে ৪(চার) জন পাবনা সদর উপজেলার- মোঃ হারেজ আলী, পিতা-মরহুম চাঁদ আলী, গ্রাম- মজিদপুর, ইউনিয়ন- মালিগাছা। মো: আব্দুল কাদের, পিতা-মরহুম কফিল উদ্দিন, গ্রাম-দক্ষিণ রাঘবপুর, পৌরসভা।

মোঃ আব্দুর রহমান, পিতা-মরহুম জয়েন উদ্দিন, গ্রাম- নাজিরপুর, ইউনিয়ন- হেমায়েতপুর। মোঃ আবুল হোসেন, পিতা-মরহুম জসিম উদ্দিন, গ্রাম-শালগাড়ীয়া, পৌরসভা।

তারা মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় যুদ্ধে অংশগ্রহণ না করে দীর্ঘ ৯ মাস নিয়মিত স্ব স্ব কর্মস্থলে উপস্থিত হয়ে অফিস সহ নিজ দায়িত্ব পালন করেন এবং নিয়মিত বেতন উত্তোলন করেন।

অপর ৫ জন মোঃ আব্দুল বাতেন, পিতা-মৃত এলাহী বক্স, নাজিরপুর, ইউনিয়ন-হেমায়েতপুর। মোঃ আশরাফ উদ্দিন আহম্মেদ, পিতা-আহসান আলী মালিথা, গ্রাম- চর গাফুরিয়াবাদ , ইউনিয়ন-হেমায়েতপুর। মোঃ আতাউর রহমান, পিতা-মৃত এরফান মন্ডল, গ্রাম-দ্বীপচর, ইউনিয়ন-দোগাছি। মোঃ আবুল কাশেম বিশ্বাস, পিতা-মৃত আমেজ উদ্দিন বিশ্বাস, গ্রাম- আটুয়া, পৌরসভা। মোঃ তরিকুল আলম নিলু, পিতা-আ: হামিদ খান, গ্রাম-নাজিরপুর, ইউনিয়ন-হেমায়েতপুর।

তারা মহান মুক্তিযুদ্ধের কোন পর্যায়ে অংশগ্রহণ না করেই যুদ্ধাহত হিসাবে ভাতা গ্রহণ করছেন মর্মে অভিযোগ প্রমানিত হওয়ার প্রেক্ষিতে মাননীয় মন্ত্রী এ নির্দেশনা প্রদান করেন।

তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশ প্রদান করেন।

এহেন সিদ্ধান্তের জন্য পাবনা সদর উপজেলার সকল মুক্তিযোদ্ধাগণ মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং সরকারের সঠিক যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে সকল ভূয়া মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা হতে বাদ দিয়ে নির্ভূল তালিকা করার প্রত্যয়কে সাধুবাদ জানান।