ঢাকা ০৭:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২২, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com

মুক্তিযোদ্ধা সেলিম হত্যাকারিদের গ্রেফতারের দাবীতে জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন

বার্তাকক্ষ
  • প্রকাশিত সময় ০৩:১৩:২৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মে ২০১৯
  • / 7

ডেস্ক রিপোর্ট – ঈশ্বরদীর রুপপুরে মুক্তিযোদ্ধা মস্তাফিজুর রহমান সেলিম হতাকান্ডে পরিকল্পনাকারী ও হুকুমদাতা গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছন নিহত মুক্তিযোদ্ধা সেলিমর ছেলে তানিভর রহমান তন্ময়।

গতকাল বুধবার (৮ ম) ঢাকা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন তিনি এই দাবি উত্থাপন করে লিখিত বক্তব্যে তন্ময় বলেন, আমার বাবাকে হতাকান্ডের পরপরই পাকশীর চেয়ারমান এনাম বিশ্বাসের ভািতজা আরজু বিশ্বাস, ছেলে রকি বিশ্বাস ও তার দুই সহযোগি লিখন ও রাজিবকে গ্রেফতার করেছে পুিলশ।

পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করে হত্যায় ব্যাবহৃত ২ট আগ্নোয়অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করেছে।

আসামীদের আরো জিজ্ঞাসাবাদ করে জিড়ত অন্যান্য খুনিদের, পরিকল্পনাকারীদের ও হুকুমদাতাদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবী জানিয়ে তন্ময় আরো বলেন, পরিকল্পনাকারী ও হুকুমদাতা গ্রেফতার বিলম্বের কারনে প্রভাব খাটিয়ে মামলার তদন্ত কাজে বাধা ও প্রভাবিত করার প্রচেস্টা চলছে।

এছাড়া আমার পরিবার, আত্মীয়স্বজন ও স্বাক্ষীদের ভয় ভীতি দেখিয়ে মামলা তুেল নয়ার জন্য চাপ দেয়া হচ্ছে। একারেণ আমার পরিবার ও আত্মীয়স্বজন চরম নিরাপত্তা হীণতায় ভুগছে।

নিরাপত্তা চেয়ে ঈশ্বরদী থানায় জিডিও করা হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন। তন্ময় আরো জানান, রুপপুর পারমাণিবক বিদ্যুৎ প্রকল্প কতৃপক্ষ পদ্মানদীর চরের খাস জমি অধিগ্রহণ পূবক সরকার ফসলের ক্ষতিপূরণ বাবদ প্রাায় ২৮ কািট টাকা বরাদ্দ করে।

কুচক্রী এনাম বিশ্বাস আত্মীয়স্বজন ও ব্যাক্তিগত কর্মচারীকে ভূয়া কৃষক সাজিয় তালিকা প্রনয়ন করে এবং টাকা উত্তোলনের অপচেস্টায় লিপ্ত হয়। ক্ষতিপূরণের টাকা যেন প্রকৃত কৃষকরা পায়, এই দাবিত আমার বাবা মুক্তিযোদ্ধা সেলিম সোচ্চার ছিলেন।

একারেণ ইউপি চেয়ারমান এনামুল হক বিশ্বাস মাস্তান বাহিনীসহ আমােদর বাড়িতে এসে পরিবারের সকলের সামনে ‘টাকা উত্তোলনে বাধা সৃস্টির পরিনাম মোটেও ভালো হবে না’ বলে হুমকি- ধামকিও দেয়।

এর কিছুিদন পর ৬ ফেব্রুয়ারি রাতে বাড়ির গেটে আমার বাবা গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন নিহত মুক্তিযোদ্ধা সেলিমের মেয়ে সানজানা রহমান ত্রপা, বোন নাজনীন মাহমুদ।

আরও উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম লিটন, জাসদ নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা সদরুল হক সুধা,সুপ্রিম কোটের আইনজীবি এাড: ফিরদা ইয়াসমীন রুমি।

ঈশ্বরদী মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার গোলাম মোস্তফা চান্না মন্ডল, পাকশীর আ: লীগ সভাপতি হবিবুল ইসলাম হব্বুল, মুক্তিযোদ্ধা ও লেখক কামাল আহম্মেদ, পাকশীর আ’লীগ নেতা জহুরুল হক মালিথাসহ অন্যান্য মুক্তিযোদ্ধা ও এলাকাবাসী।

মুক্তিযোদ্ধা সেলিম হত্যাকারিদের গ্রেফতারের দাবীতে জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত সময় ০৩:১৩:২৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৯ মে ২০১৯

ডেস্ক রিপোর্ট – ঈশ্বরদীর রুপপুরে মুক্তিযোদ্ধা মস্তাফিজুর রহমান সেলিম হতাকান্ডে পরিকল্পনাকারী ও হুকুমদাতা গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছন নিহত মুক্তিযোদ্ধা সেলিমর ছেলে তানিভর রহমান তন্ময়।

গতকাল বুধবার (৮ ম) ঢাকা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন তিনি এই দাবি উত্থাপন করে লিখিত বক্তব্যে তন্ময় বলেন, আমার বাবাকে হতাকান্ডের পরপরই পাকশীর চেয়ারমান এনাম বিশ্বাসের ভািতজা আরজু বিশ্বাস, ছেলে রকি বিশ্বাস ও তার দুই সহযোগি লিখন ও রাজিবকে গ্রেফতার করেছে পুিলশ।

পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করে হত্যায় ব্যাবহৃত ২ট আগ্নোয়অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করেছে।

আসামীদের আরো জিজ্ঞাসাবাদ করে জিড়ত অন্যান্য খুনিদের, পরিকল্পনাকারীদের ও হুকুমদাতাদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবী জানিয়ে তন্ময় আরো বলেন, পরিকল্পনাকারী ও হুকুমদাতা গ্রেফতার বিলম্বের কারনে প্রভাব খাটিয়ে মামলার তদন্ত কাজে বাধা ও প্রভাবিত করার প্রচেস্টা চলছে।

এছাড়া আমার পরিবার, আত্মীয়স্বজন ও স্বাক্ষীদের ভয় ভীতি দেখিয়ে মামলা তুেল নয়ার জন্য চাপ দেয়া হচ্ছে। একারেণ আমার পরিবার ও আত্মীয়স্বজন চরম নিরাপত্তা হীণতায় ভুগছে।

নিরাপত্তা চেয়ে ঈশ্বরদী থানায় জিডিও করা হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন। তন্ময় আরো জানান, রুপপুর পারমাণিবক বিদ্যুৎ প্রকল্প কতৃপক্ষ পদ্মানদীর চরের খাস জমি অধিগ্রহণ পূবক সরকার ফসলের ক্ষতিপূরণ বাবদ প্রাায় ২৮ কািট টাকা বরাদ্দ করে।

কুচক্রী এনাম বিশ্বাস আত্মীয়স্বজন ও ব্যাক্তিগত কর্মচারীকে ভূয়া কৃষক সাজিয় তালিকা প্রনয়ন করে এবং টাকা উত্তোলনের অপচেস্টায় লিপ্ত হয়। ক্ষতিপূরণের টাকা যেন প্রকৃত কৃষকরা পায়, এই দাবিত আমার বাবা মুক্তিযোদ্ধা সেলিম সোচ্চার ছিলেন।

একারেণ ইউপি চেয়ারমান এনামুল হক বিশ্বাস মাস্তান বাহিনীসহ আমােদর বাড়িতে এসে পরিবারের সকলের সামনে ‘টাকা উত্তোলনে বাধা সৃস্টির পরিনাম মোটেও ভালো হবে না’ বলে হুমকি- ধামকিও দেয়।

এর কিছুিদন পর ৬ ফেব্রুয়ারি রাতে বাড়ির গেটে আমার বাবা গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যায়।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন নিহত মুক্তিযোদ্ধা সেলিমের মেয়ে সানজানা রহমান ত্রপা, বোন নাজনীন মাহমুদ।

আরও উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম লিটন, জাসদ নেতা ও মুক্তিযোদ্ধা সদরুল হক সুধা,সুপ্রিম কোটের আইনজীবি এাড: ফিরদা ইয়াসমীন রুমি।

ঈশ্বরদী মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার গোলাম মোস্তফা চান্না মন্ডল, পাকশীর আ: লীগ সভাপতি হবিবুল ইসলাম হব্বুল, মুক্তিযোদ্ধা ও লেখক কামাল আহম্মেদ, পাকশীর আ’লীগ নেতা জহুরুল হক মালিথাসহ অন্যান্য মুক্তিযোদ্ধা ও এলাকাবাসী।