পাবনার চলনবিলে নৌকা ডুবির ঘটনায় চারজন নিখোঁজ

আজ শুক্রবার (৩১ আগস্ট) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে চাটমোহর উপজেলার পাইকপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

চাটমোহর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শরিফুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ঈশ্বরদী থেকে আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রর কর্মকর্তা ও তাদের পরিবারের সদস্যরাসহ ২২ জনের একটি দল নৌকায় করে তারাশসহ চলনবিলের বিভিন্ন স্থানে ঘুরতে যায়।

ফেরারপথে পাবনা জেলার চাটমোহর উপজেলার চলনবিলের পাইকপাড়া এলাকায় নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটে,  এখন পর্যন্ত ৪ জন নিখোঁজ রয়েছেন।স্থানীয়রা জানান, বেশিরভাগ ভ্রমণকারী নৌকার ছাউনির ওপরে বসে ছিলেন।

হাঠাৎ নৌকা উল্টে গেলে নৌকাসহ সবাই তলিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা ও দমকলবাহিনীর কর্মীরা ভ্রমণকারীদের উদ্ধার করলেও চারজনের খোঁজ মিলেনি।ঘটনাস্থলে ও এর আশেপাশে এখনও উদ্ধার অভিযান চলমান রয়েছে। সেখানে পাবনা- চাটমোহর ও তারাশ ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

রাজশাহী থেকে একটি ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযানে যোগ দেওয়ার জন্য রওনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ।নিখোঁজ হওয়া দুজনের পরিচয় পাওয়া গেছে তারা হলেন, ঈশ্বরদী আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রর উর্ধতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা মো: বিল্লাল গণি (৫৫) ও তাঁর স্ত্রী মমতাজ পারভিন শিউলী (৪৭)।

এরা দু’জন পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য ও বাংলাদেশ ফার্ম শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মোঃ জয়নুল আবেদীনের মেয়ে ও জামাই।
বাকীদের নাম পরিচয় এখনো নিশ্চিত হওয়া সম্ভব হয়নি।পাবনা ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক সাইফুল ইসলাম জানান,

এখনও কোন লাশ উদ্ধার হয়নি উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রয়েছে,গত বছরের ২ সেপ্টেম্বর পাবনার টেবুনিয়া থেকে চলনবিলে নৌকা ভ্রমনে গিয়ে একই পরিবারের ৩ জন নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছিলো।

বিস্তারিত আসছে……

একই ধরনের খবর

মন্তব্য করুন