ঢাকা ০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com // দৈনিক স্বতঃকণ্ঠ অনলাইন ও প্রিন্ট পত্রিকায় বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৭১১-৩৩৩৮১১, ০১৭৪৪-১২৪৮১৪

মানাবের উদ্যোগে ৫০ পরিবারে ফিরলো ঈদ আনন্দ

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত সময় ০৫:৩৮:২০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০২৪
  • / 80



ঈশ্বরদীর সামাজিক সেবামূলক প্রতিষ্ঠান মানাব (মাদককে না বলুন) এর উদ্যোগে ছিন্নমূল ৫০ পরিবারে ফিরলো ঈদের আনন্দ। একই সঙ্গে অসুস্থ তিন রোগী পেলেন চিকিৎসা খরচ।

মানাবের ধারাবাহিক কাজের ভূয়সী প্রশংসা করেন সুবিধাভোগী অসহায় পরিবারের সদস্যরা।

বুধবার ১০ এপ্রিল বিকেলে মানাবের উদ্যোগে ঈশ্বরদী উপজেলার শহর ও গ্রামের বিভিন্ন এলাকায় ওইসব পরিবারের মধ্যে ঈদ সামগ্রি ও রোগিদের পরিবারের নিকট চিকিৎসা বাবদ নগদ টাকা প্রদান করা হয়।

ঈদ সামগ্রির মধ্যে ছিল এক কেজি গরুর মাংস, এক কেজি পোলাও চাউল, এক লিটার সয়াবিনের ভোজ্য তেল, আধা কেজি চিনি, এক প্যাকেট সেমাই, এক প্যাকেট লবন, এক কেজি আলু, আধা কেজি কলাইয়ের ডাল, এক প্যাকেট দুধ ও পরিমাণ মত মসলা।

এছাড়াও দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত অসহায় তিন পরিবারের নিকট নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে।

মানাবের সভাপতি সমাজকর্মী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মাসুম পারভেজ কল্লোল বলেন, সংগঠনটির এক দল যুবক নিজস্ব অর্থায়নে সমাজ থেকে মাদক নির্মূলের লক্ষ্যে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে যাচ্ছে। বছর জুড়েই সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত অর্থায়নে মাদকাসক্তদের চিকিৎসা ও পূর্নবাসনের ব্যবস্থা পরিচালিত হয়। পাশাপাশি চক্ষুরোগিদের অপারেশনসহ দুরারোগ্য রোগিদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে আর্থিক সহযোগিতা করা হয়। একই সঙ্গে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ বেকার যুবকদের মাদক থেকে দুরে রাখতে বিশেষ পরামর্শক প্রদান করা হয়। তাদের সুস্থ বিনোদন ও ক্রীড়ামোদি করে গড়ে তুলতে সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড ও খেলাধুলার আয়োজন করা হয়।

তিনি আরও বলেন, সংগঠনটির পক্ষ থেকে ঈদের আগে সমাজের ছিন্নমূল ও সুবিধা বঞ্চিত পরিবারগুলোর ছেলে মেয়েদের পোশাক প্রদান করা হত। কিন্তু করোনার মহামারির কারণে ২০২০ সাল থেকে ঈদ উৎসবগুলোতে খাদ্য সামগ্রি বিতরণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

মানাবের মত অন্যান্য ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান এগিয়ে আসলে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির উর্দ্ধমূল্যের বাজারে সমাজের সুবিধা বঞ্চিত ও ছিন্নমূল মানুষগুলোকে সঙ্গে নিয়ে ঈদের আনন্দ উপভোগ করা আরও সহজ হবে বলে আশাবাদী এই সমাজকর্মী।

এসব কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন, মানাব কর্মী আরাফাত জামান, ফারজানা ফেরদৌস পুষ্প, আবির হোসেন, রাব্বি রহমান, তারিফুল আলম আলিফ, আসিফ সরকার, সঞ্জ, রাতুল, নিশাত, তাসনিম, পিয়াস ইসলাম প্রমুখ।

এই রকম আরও টপিক

মানাবের উদ্যোগে ৫০ পরিবারে ফিরলো ঈদ আনন্দ

প্রকাশিত সময় ০৫:৩৮:২০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১০ এপ্রিল ২০২৪



ঈশ্বরদীর সামাজিক সেবামূলক প্রতিষ্ঠান মানাব (মাদককে না বলুন) এর উদ্যোগে ছিন্নমূল ৫০ পরিবারে ফিরলো ঈদের আনন্দ। একই সঙ্গে অসুস্থ তিন রোগী পেলেন চিকিৎসা খরচ।

মানাবের ধারাবাহিক কাজের ভূয়সী প্রশংসা করেন সুবিধাভোগী অসহায় পরিবারের সদস্যরা।

বুধবার ১০ এপ্রিল বিকেলে মানাবের উদ্যোগে ঈশ্বরদী উপজেলার শহর ও গ্রামের বিভিন্ন এলাকায় ওইসব পরিবারের মধ্যে ঈদ সামগ্রি ও রোগিদের পরিবারের নিকট চিকিৎসা বাবদ নগদ টাকা প্রদান করা হয়।

ঈদ সামগ্রির মধ্যে ছিল এক কেজি গরুর মাংস, এক কেজি পোলাও চাউল, এক লিটার সয়াবিনের ভোজ্য তেল, আধা কেজি চিনি, এক প্যাকেট সেমাই, এক প্যাকেট লবন, এক কেজি আলু, আধা কেজি কলাইয়ের ডাল, এক প্যাকেট দুধ ও পরিমাণ মত মসলা।

এছাড়াও দুরারোগ্য রোগে আক্রান্ত অসহায় তিন পরিবারের নিকট নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে।

মানাবের সভাপতি সমাজকর্মী ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মাসুম পারভেজ কল্লোল বলেন, সংগঠনটির এক দল যুবক নিজস্ব অর্থায়নে সমাজ থেকে মাদক নির্মূলের লক্ষ্যে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করে যাচ্ছে। বছর জুড়েই সম্পূর্ণ ব্যক্তিগত অর্থায়নে মাদকাসক্তদের চিকিৎসা ও পূর্নবাসনের ব্যবস্থা পরিচালিত হয়। পাশাপাশি চক্ষুরোগিদের অপারেশনসহ দুরারোগ্য রোগিদের চিকিৎসার ক্ষেত্রে আর্থিক সহযোগিতা করা হয়। একই সঙ্গে স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া শিক্ষার্থীসহ বেকার যুবকদের মাদক থেকে দুরে রাখতে বিশেষ পরামর্শক প্রদান করা হয়। তাদের সুস্থ বিনোদন ও ক্রীড়ামোদি করে গড়ে তুলতে সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড ও খেলাধুলার আয়োজন করা হয়।

তিনি আরও বলেন, সংগঠনটির পক্ষ থেকে ঈদের আগে সমাজের ছিন্নমূল ও সুবিধা বঞ্চিত পরিবারগুলোর ছেলে মেয়েদের পোশাক প্রদান করা হত। কিন্তু করোনার মহামারির কারণে ২০২০ সাল থেকে ঈদ উৎসবগুলোতে খাদ্য সামগ্রি বিতরণ কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

মানাবের মত অন্যান্য ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান এগিয়ে আসলে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যাদির উর্দ্ধমূল্যের বাজারে সমাজের সুবিধা বঞ্চিত ও ছিন্নমূল মানুষগুলোকে সঙ্গে নিয়ে ঈদের আনন্দ উপভোগ করা আরও সহজ হবে বলে আশাবাদী এই সমাজকর্মী।

এসব কর্মসূচিতে উপস্থিত ছিলেন, মানাব কর্মী আরাফাত জামান, ফারজানা ফেরদৌস পুষ্প, আবির হোসেন, রাব্বি রহমান, তারিফুল আলম আলিফ, আসিফ সরকার, সঞ্জ, রাতুল, নিশাত, তাসনিম, পিয়াস ইসলাম প্রমুখ।