ঢাকা ০৫:১০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশের জেলা উপোজেলা পর্যায়ে দৈনিক স্বতঃকণ্ঠে সংবাদকর্মী নিয়োগ চলছে । আগ্রহী প্রার্থীগন জীবন বৃত্তান্ত ইমেইল করুন shatakantha.info@gmail.com // দৈনিক স্বতঃকণ্ঠ অনলাইন ও প্রিন্ট পত্রিকায় বিজ্ঞাপনের জন্য যোগাযোগ করুন ০১৭১১-৩৩৩৮১১, ০১৭৪৪-১২৪৮১৪

পার্বত্যাঞ্চলে কুকি-চিনের গুলিতে সেনাসদস্য নিহত

নিজেস্ব প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত সময় ০৭:৫৫:২১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪
  • / 55

নিহত সেনাসদস্য মোঃ রফিকুল ইসলাম।



পার্বত্যাঞ্চলের দেশ বিরোধী সশস্ত্র সন্ত্রাসী সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) গুলিতে মোঃ রফিকুল ইসলাম নামে এক সেনাসদস্য নিহত হয়েছে।

নিহত সেনা সদস্য রফিকুল ইসলাম নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলার পরকোট ইউনিয়নের পশ্চিম শোশালিয়া গ্রামের মালের বাড়ির মফিজ মিয়ার ছেলে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার ১৯ এপ্রিল রাত ৮ ঘটিকায় দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় সন্ত্রাসী সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) গুলিতে রফিকুল ইসলাম নিহত হওয়ার সংবাদ পেয়েছেন। শনিবার সকালে নিহত সেনাসদস্য রফিকুল ইসলামের পিতা ও ছোট ভাই পরিবারের সদস্যরা মরদেহ গ্রহণ করতে বান্দরবান সেনানিবাসে রওয়ানা দিয়েছেন।

বান্দরবান সেনানিবাস থেকে পরিবারের সদস্যদের জানানো হয়, আনুষ্ঠানিকতা ও জানাযা শেষে তার মরদেহ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। পরবর্তীতে রফিকের মরদেহ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসার কথা রয়েছে। গ্রামের বাড়িতে ২য় জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হবে।

রফিকুল ৩ পুত্র সন্তানের জনক ছিলেন। তিনি ২০০৫ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে সৈনিক পদে যোগদান করেন। তিনি জাতিসংঘের শান্তি রক্ষা মিশনে কংগোতে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে বান্দরবানে কর্মরত থাকা অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

নিহতের বোন জানান, তিন ভাইয়ের বাকী দুই ভাই আর্থিক ভাবে সচ্ছল না থাকায় পরিবার ও ভাই-বোনদের মধ্যে একমাত্র রফিকুল ইসলামই সকলের খোঁজ খবর রাখতেন। মেনে নিতে পারছেন না ভাইয়ের এমন মৃত্যু, বার বার কান্নার আহাজারি করছেন।

নিহতের মা অসুস্থ হয়ে বিছানায় শয্যাশায়ী। পরিবারে চলছে শোকের মাতম।

শনিবার ২০ এপ্রিল সকালে তার গ্রামের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, স্বজনদের আহাজারীতে পুরো এলাকা ভারী হয়ে আছে। শনিবার বিকেলে সেনা সদস্যের লাশ নিজ বাড়িতে আনা হয়। জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত করা হয়।

এই রকম আরও টপিক

পার্বত্যাঞ্চলে কুকি-চিনের গুলিতে সেনাসদস্য নিহত

প্রকাশিত সময় ০৭:৫৫:২১ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪



পার্বত্যাঞ্চলের দেশ বিরোধী সশস্ত্র সন্ত্রাসী সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) গুলিতে মোঃ রফিকুল ইসলাম নামে এক সেনাসদস্য নিহত হয়েছে।

নিহত সেনা সদস্য রফিকুল ইসলাম নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলার পরকোট ইউনিয়নের পশ্চিম শোশালিয়া গ্রামের মালের বাড়ির মফিজ মিয়ার ছেলে।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার ১৯ এপ্রিল রাত ৮ ঘটিকায় দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় সন্ত্রাসী সংগঠন কুকি-চিন ন্যাশনাল ফ্রন্টের (কেএনএফ) গুলিতে রফিকুল ইসলাম নিহত হওয়ার সংবাদ পেয়েছেন। শনিবার সকালে নিহত সেনাসদস্য রফিকুল ইসলামের পিতা ও ছোট ভাই পরিবারের সদস্যরা মরদেহ গ্রহণ করতে বান্দরবান সেনানিবাসে রওয়ানা দিয়েছেন।

বান্দরবান সেনানিবাস থেকে পরিবারের সদস্যদের জানানো হয়, আনুষ্ঠানিকতা ও জানাযা শেষে তার মরদেহ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হবে। পরবর্তীতে রফিকের মরদেহ গ্রামের বাড়িতে নিয়ে আসার কথা রয়েছে। গ্রামের বাড়িতে ২য় জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন করা হবে।

রফিকুল ৩ পুত্র সন্তানের জনক ছিলেন। তিনি ২০০৫ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে সৈনিক পদে যোগদান করেন। তিনি জাতিসংঘের শান্তি রক্ষা মিশনে কংগোতে দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে বান্দরবানে কর্মরত থাকা অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

নিহতের বোন জানান, তিন ভাইয়ের বাকী দুই ভাই আর্থিক ভাবে সচ্ছল না থাকায় পরিবার ও ভাই-বোনদের মধ্যে একমাত্র রফিকুল ইসলামই সকলের খোঁজ খবর রাখতেন। মেনে নিতে পারছেন না ভাইয়ের এমন মৃত্যু, বার বার কান্নার আহাজারি করছেন।

নিহতের মা অসুস্থ হয়ে বিছানায় শয্যাশায়ী। পরিবারে চলছে শোকের মাতম।

শনিবার ২০ এপ্রিল সকালে তার গ্রামের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, স্বজনদের আহাজারীতে পুরো এলাকা ভারী হয়ে আছে। শনিবার বিকেলে সেনা সদস্যের লাশ নিজ বাড়িতে আনা হয়। জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত করা হয়।